বগুড়ায় মাদ্রাসায় ছেলে শিশু ধর্ষণ

  নাজমুল হুদা

প্রকাশ: ৫ আগস্ট ২০২৩, ১০:৫৮ |  আপডেট  : ১৪ জুন ২০২৪, ২৩:৪৫

বগুড়ার নন্দীগ্রামে এক মাদ্রাসাছাত্র ধর্ষণের ঘটনা এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। 

ঘটনাটি ঘটে নন্দীগ্রাম উপজেলার নন্দীগ্রাম ইউনিয়নের তেঘর আশরাফিয়া হাফেজিয়া মাদ্রাসায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নাটোর জেলার সিংড়া উপজেলার কাছুটিয়া গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে মাওলানা আব্দুস সালাম ওই মাদ্রাসাশিক্ষক হিসেবে চাকুরি করে। এদিকে নন্দীগ্রাম উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের তেঘরী গ্রামের ১২ বছর বয়সি এক ছাত্র ওই মাদ্রাসায় আরবি শিক্ষা গ্রহণ করতো। 

এমতাবস্থায় গত শনিবার (২৯ জুলাই) গভীর রাতে ওই মাদ্রাসার ছাত্ররা প্রতিদিনের মতো ঘুমিয়ে পড়লে মাদ্রাসাশিক্ষক মাওলানা আব্দুস সালাম ওই ছাত্রকে ঘুম থেকে জাগিয়ে একটি কক্ষে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক বলাৎকার করে। 

পরে ওই ছাত্র বিষয়টি প্রথমে অন্যান্য ছাত্রদের জানায়। তারপর লজ্জিত হয়ে মাদ্রাসা থেকে নিজ বাড়িতে চলে যায়। এই ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা চললেও পরে জানাজানি হয়ে যায়। এরপর মাদ্রাসাশিক্ষক মাওলানা আব্দুস সালাম পালিয়ে যায়। 

মাদ্রাসাছাত্র বলাৎকার ঘটনা এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সংশ্লিষ্টরা বিষয়টি জানার পরেও তাকে পুলিশে সোপর্দ না করায় এলাকায় ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। 

শুক্রবার (৪ আগস্ট) নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেনের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, এ ঘটনায় বাদী পক্ষ মামলা দায়ের করলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত