জমে উঠেছে ইতালির ঈদ বাজার

  জাকির হোসেন সুমন, ব্যাুরো চিফ ইউরোপ

প্রকাশ: ২৮ এপ্রিল ২০২২, ১১:২০ |  আপডেট  : ২০ মে ২০২২, ১০:০১

মুসলমানদের পবিত্র মাহে রমজান শেষের দিকে।বাংলাদেশের ন্যায় ইতালিতে বসবাসরত বাংলাদেশীদের মাঝে বইছে ঈদ উৎযাপনের আনন্দ । ঈদকে সামনে রেখে প্রস্তুতি চলছে নানা আয়োজন ও কেনাকাটা।করোনা কাটিয়ে ঈদের প্রস্তুতি প্রবাসী বাংলাদেশীদের। 

ইতালিতে বসবাসরত বাংলাদেশীদের মাঝে বইছে উৎসবের আমেজ।চলছে নানা প্রস্তুতি । ইতালির ভেনিসে বসবাসরত সৈয়দা শাহনাজ ইসলাম, ঘরের কাজ শেষ করে অবসর না কাটিয়ে শুরু করেন অনলাইন ব্যাবসা।ব্যাবসা জমে উঠায় ঈদকে সামনে রেখে ভেনিসের মেসত্রে তে নূসরাত ফ্যাশন নামে ব্যাবসা শুরু করেন দোকান ভাড়া নিয়ে।বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, ইংল্যান্ড হতে কাপড়, গহনা এনে পসরা সাজিয়ে ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী পন্য সরবরাহ শুরু করেন। করোনা কালিন সময়ে দুই বছর তেমন ভাবে ঈদ উৎপাদন করতে পারেনি প্রবাসী বাংলাদেশীরা। লক ডাউন  সহ নানা বিধিনিষেধের কারনে সবাই একত্রিত হয়ে নামাজ আদায় করতে পারেনি অনেকে। চলতি বছর বিধিনিষেধ সিথিল হওয়ায়  কিছুটা ঈদের আমেজ লক্ষ করা যাচ্ছে, তা ছাড়া পোশাক তৈরির অর্ডার ও বেরেছে টেইলারের দোকান গুলোতে। 
 
ইতালিতে যারা ব্যবসায়ী রয়েছেন তাদের অনেকের ব্যাবসা এখন ভালো যাচ্ছে, বিশেষ করে স্টেশনারি দোকান গুলোতে, মাংশ,  সেমাই, চিনি সহ মসলা বিক্রির পরিমান বৃদ্ধি পেয়েছে ঈদকে সামনে রেখে। 

তবে বাংলাদেশে  ঈদকে কেন্দ্র করে যেমন আনন্দ ও বেচাকেনা হয় ইতালিতে তেমনটি চোখে পড়ে না।ছুটির দিনে ঈদ না হলে ঈদের আনন্দ পরিবারের সাথে ভাগাভাগি না করে জীবিকার তাগিদে কাজে চলে যেতে হয় তাইতো ঘরের কর্তা ব্যাক্তিটিকে ছাড়াই পরিবারের অন্যান্নদের ঈদ আনন্দ  অনেকটা ম্লান হয়ে যায় । এ বছর ইতালির রাজধানী রোম, মিলান, ভেনিস,  জেনোভা,  মনফালকনে, বোলোনিয়া, নাপলি, আনকোনা, ত্রেভিজো পাদোভা, ব্রেসিয়া, পিজাসহ প্রতিটি শহরে একাধিক সামাজিক সংগঠন ও মসজিদ কমিটি জামাতে নামাজের ব্যবস্হা করেছেন।  ইতালির আবহাওয়া  ভালো থাকলে বৃষ্টি না হলে বিভিন্ন পার্কে খোলা স্হানে  ঈদের জামাত হবে বলে জানা গিয়েছে ।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত