১৩১ বছর ধরে বাধা বিপত্তি পেরিয়ে দাঁড়িয়ে আছে আইফেল টাওয়ার

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ৩১ মে ২০২৩, ১৩:৫৪ |  আপডেট  : ১৫ মে ২০২৪, ১২:০৮

ফরাসী বিপ্লব স্বরনীয় করে রাখতে নির্মাণ করা হয়েছিলো আইফেল টাওয়ার। আইফেল টাওয়ার প্যারিস শহরের আকর্ষণ নয়, গোটা বিশ্বে পরিচিত এক নাম। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় হিটলার আইফেল টাওয়ারটি ধ্বংস করার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

যদিও তা অমান্য করা হয়েছে। নির্মাণের ২০ বছর পর এটি খুলে ফেলারও সিদ্বান্ধ নেয়া হয়েছিলো। কিন্তু তার আগেই আইফেল টাওয়ারে খ্যাতি ছড়িয়েছে বিশ্বব্যাপী। ১৩১ বছর বয়সী এ টাওয়ার কাছে টানছে দেশী বিদেশী পর্যটকদের আর সমৃদ্ধি রাখছে দেশের অর্থনীতিতে। 

যুগের পর যুগ, বছরের পর বছর এভাবেই মাথা উচু করে দাড়িয়ে আছে লোহা দিয়ে তৈরী এ স্তম্ভ যা কিনা সপ্তম আশ্চার্য্যের অন্যতম নিদর্শন। কিন্তু প্রশ্ন হলো পর্যটকদের কাছে দেখার মতো কি এমন বস্তু এটি, যাকে ঘিরে বছর জুড়েই পর্যটকদের আনাগোনা থাকে প্যারিসে। 

আইফেল টাওয়ার প্যারিস শহরে অবস্থিত সুউচ্চ একটি লৌহ কাঠামো যা ফ্রান্সের সর্বাধিক পরিচিত প্রতীক। গুস্তাভো আইফেল নির্মিত ৩২০ মিটার তথা ১০৫০ ফুট উচ্চতার এই টাওয়ারটি ছিল ১৮৮৯ খ্রিষ্টাব্দ থেকে পরবর্তী ৪০ বছর যাবৎ পৃথিবীর উচ্চতম টাওয়ার। গুস্তাভো ইফেল রেলের জন্য সেতুর নকশা প্রণয়ন করতেন এবং টাওয়ারটি নির্মাণে তিনি সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়েছিলেন। ১৮,০৩৮ খণ্ড লোহার তৈরি বিভিন্ন আকৃতির ছোট-বড় কাঠামো জোড়া দিয়ে এই টাওয়ার তৈরি করা হয়েছিল। ৩০০ শ্রমিক এই নির্মাণ যজ্ঞে অংশ নিয়েছিল। এটির উপর দুইবার অ্যান্টেনা স্থাপনের ফলে আইফেল টাওয়ারের বর্তমান উচ্চতা ৩৩০ মিটার (১০৮৩ ফুট)। 

শরত ও বসন্তকাল আইফেল টাওয়ার ভ্রমণের সেরা সময়। বিশেষ করে ক্রিসমাসের সময় সবচেয়ে বেশি পর্যটকের আনাগোনা থাকে। সেই সময় অনেক ধরণের সুযোগ সুবিধার  আয়োজন করা হয়। 

উপর থেকে আইফেল টাওয়ার

সারাবছর সময়সূচি মেনে টাওয়ার ভ্রমণের জন্য খোলা হয়। ১৫ জুন থেকে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত সকাল ও সন্ধ্যায় পর্যটকদের জন্য খোলা হয়। বছরের অন্যান্য সময় সকাল ১০টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত খোলা থাকে। পর্যটন মৌসুমে সময় বাড়িয়ে দেইয়া হয়। 

প্যারিসের যেকোন স্থান থেকে আইফেল টাওয়ারে যাওয়া খুব সহজ। কাঠামোটি বাইরে থেকে দেখার জন্য খুব বেশি কষ্ট করতে হয়না। সুউচ্চ টাওয়ারটি অনেক দূর থেকেই দেখা যায়। কিন্তু উপরে গিয়ে পুরো প্যারিস শহরটিকে দেখার জন্য আপনাকে টিকিট কাটতে হবে। 

০ থেকে ৪ বছরের শিশুদের জন্য কোন টিকিট প্রয়োজন হয়না। কিন্তু ধাপে ধাপে উপরে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন মূল্যে টিকিট সংগ্রহ করতে হবে। 

নিচ থেকে সিড়িতে দ্বিতল পর্যন্ত যাওয়ার জন্য টিকিট মূল্য-
বয়স ৪ থেকে ১১- ৩ ইউরো
বয়স  ১২ থেকে ২৪- ৩.৫ ইউরো
প্রাপ্তবয়স্ক ৫ ইউরো

লিফটের মাধ্যমে দ্বিতল পর্যন্ত
বয়স ৪ থেকে ১১- ৪ ইউরো
বয়স  ১২ থেকে ২৪- ৭ ইউরো
প্রাপ্তবয়স্ক ৮.৫ ইউরো

নিচ তল থেকে সর্বোচ্চ তল পর্যন্ত
বয়স ৪ থেকে ১১- ১০ ইউরো
বয়স  ১২ থেকে ২৪- ১৩ ইউরো
প্রাপ্তবয়স্ক ১৪.৫ ইউরো


 

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত