বিশ্ব থাইরয়েড দিবস আজ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৫ মে ২০২৩, ১১:৩৫ |  আপডেট  : ২০ মে ২০২৪, ০৫:০৯

বিশ্ব থাইরয়েড দিবস আজ (২৫ মে, বৃহস্পতিবার)। বাংলাদেশ এন্ডোক্রাইন সোসাইটি (বিইএস) প্রতিবারের মতো এ বছরও বিশ্ব থাইরয়েড দিবস উদ্যাপনে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। দেশের সব মানুষের কাছে থাইরয়েড সমস্যাজনিত প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো পৌঁছে দেয়া বিইএস-এর মূল উদ্দেশ্য। ২০০৯ সাল থেকে সারা বিশ্বে এ দিবসটি পালিত হচ্ছে। দিবসটি উদ্যাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ এন্ডোক্রাইন সোসাইটি দুপুর সাড়ে ১২টায় প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের বল রুমে ‘বৈজ্ঞানিক অধিবেশন’ এবং ‘গর্ভাবস্থায় থাইরয়েড রোগের চিকিৎসার গাইডলাইন’ প্রকাশ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।

এ সময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন স্বাস্থ্যশিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়সহ দেশবরেণ্য খ্যাতিমান সম্মানিত চিকিৎসকরা। বাংলাদেশে সরকারি পর্যায়ে দিবসটি উদ্যাপিত না হলেও থাইরয়েড রোগ সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলো কয়েক বছর ধরেই দিবসটিকে যথাযথভাবে পালনের উদ্যোগ গ্রহণ করে আসছে। বর্তমানে বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার প্রায় ৩০ শতাংশের কাছাকাছি থাইরয়েড রোগে আক্রান্ত বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ এন্ডোক্রাইন সোসাইটি। এদের অর্ধেকের বেশিই জানে না যে তারা থাইরয়েড সমস্যায় ভুগছে।

প্রাপ্তবয়স্ক নারীদের প্রায় ২ শতাংশ এবং পুরুষদের প্রায় ০.২ শতাংশ হাইপারথাইরয়েডিজম (থাইরয়েড হরমোনের বৃদ্ধিজনিত সমস্যা) রোগে ভোগে। ২০ থেকে ৩০ বছর বয়সের মধ্যে এ রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বেশি। প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ-নারীদের মধ্যে ৩.৯ থেকে ৯.৪ শতাংশ হারে হাইপোথাইরয়েডিজম (থাইরয়েড হরমোনের ঘাটতি জনিত সমস্যা) থাকতে পারে। আরও প্রায় ৭ শতাংশ নারী ও পুরুষ সাবক্লিনিক্যাল হাইপোথাইরয়েডিজমে ভুগে থাকে।

নবজাতকদেরও থাইরয়েডের হরমোন ঘাটতিজনিত সমস্যা হতে পারে এবং তার হার ১০ হাজার জীবিত নবজাতকের জন্য ২-৮ হতে পারে। বাড়ন্ত শিশুরাও থাইরয়েড হরমোন ঘাটতিতে ভুগতে পারে। এ সময় থাইরয়েডের হরমোন ঘাটতি হলে শিশুদের দৈহিক ও মানসিক বৃদ্ধি ব্যাহত হয়। শিশু-কিশোরদের হাইপোথাইরয়েডিজম হলে তা দ্রুত সমাধান করা না গেলে বুদ্ধিবৃত্তির বিকাশ স্থায়ীভাবে ব্যাহত হবে।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত