বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের কাছে ২৩ কেজি স্বর্ণ জব্দ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৫:২৩ |  আপডেট  : ১৮ জুন ২০২৪, ১২:৩৭

বিএসএফের জব্দ করা স্বর্ণ

বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত থেকে ২৩ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়েছে। পাচারকালে এসব স্বর্ণ উদ্ধার করে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ। এর বাজার মূল্য প্রায় ১৪ কোটি রুপি বলে জানায় তারা

বিএসএফের দক্ষিণবঙ্গ সীমান্তের অধীন ৬৮ নম্বর ব্যাটালিয়নের সীমা চৌকি পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বাগদা থানার রনঘাটের জওয়ানরা সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে এই স্বর্ণ জব্দ করেন। বিএসএফ সূত্র জানায়, ১৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৭টার দিকে জওয়ানরা খবর পান, তাদের এলাকায় অবস্থিত ভ্যান মোড় দিয়ে স্বর্ণের বড় একটি চালান পাচার হতে চলেছে। তারা সেখানে পৌঁছে অবস্থান নেন।

কিছুক্ষণ পরেই জওয়ানরা এক সন্দেহজনক মোটরসাইকেল আরোহীকে ভ্যান মোড়ের দিকে আসতে দেখেন। তাকে থামিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের সময় ওই ব্যক্তি ঘাবড়ে যায় এবং মোটরসাইকেল ফেলে ঘটনাস্থল থেকে পালানোর চেষ্টা করে। বিএসএসএফ সদস্যরা তাকে ধরে ফেলেন এবং সীমান্ত চৌকি রনঘাটে নিয়ে যান। চৌকিতে পৌঁছে মোটরসাইকেলটি ভালোভালে তল্লাশি করে এর এয়ার ফিল্টার থেকে স্বর্ণের ৫০টি বার বের করেন। এই স্বর্ণ জব্দ করা হয়।

গ্রেফতার করা হয়ে ইন্দ্রজিৎ পাত্র নামের ওই মোটরসাইকেল চালককে। তার বাড়ি বাগদা থানার কুলিয়া গ্রামে। সে জানায়, এই স্বর্ণ বাংলাদেশ থেকে ভারতে আনা হয়েছে। আউলডাঙা গ্রামে তার ভাইয়ের একটি জুয়েলারির দোকান রয়েছে। সে তার ভাইয়ের সঙ্গে জুয়েলারির কাজ করে।

সে আরও জানায়, কিছুদিন আগে রনঘাট গ্রামের বাসিন্দা সমীর তার সঙ্গে দেখা করে রনঘাট থেকে বনগাঁয় স্বর্ণ পৌঁছানোর জন্য চুক্তি করে। সে সমীরের কাছ থেকে প্রতি মাসে ১৫ হাজার রুপি পাওয়ার প্রস্তাব পায়। সমীর কুলিয়া গ্রামে তার বাড়ির কাছে এই স্বর্ণ তার হাতে তুলে দেয়। এরপর সে এই স্বর্ণ বাইকের এয়ার ফিল্টারে লুকিয়ে ভ্যান মোড় হয়ে বনগাঁয় নিয়ে যাচ্ছিল।

গ্রেফতার ব্যক্তি ও বাজেয়াপ্ত স্বর্ণ পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বাগদা শুল্ক অফিসে হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বছর বিএসএফ-এর দক্ষিণবঙ্গ সীমান্ত ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকা থেকে ১১৪ কেজি স্বর্ণ বাজেয়াপ্ত করেছিল। এ বছর এখনও পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গ সীমান্ত থেকে ১২০ কেজি স্বর্ণ জব্দ করা হয়েছে।

 

কা/আ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত