পবিত্র ঈদুল আযহা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২০ জুলাই ২০২১, ১০:১৯ সকাল |  আপডেট  : ৩১ জুলাই ২০২১, ১:৫৭ সকাল

২১ জুলাই বুধবার সারা দেশে পালিত হবে ঈদুল আযহা। এবারও করোনা মহামারীর কারণে সীমিত সংখ্যক মানুষ অংশ নিতে পেরেছে হজে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের অন্যকোনো দেশ থেকেই কেউ হজে অংশ নিতে পারেনি।

ঈদুল আযহা মুসলিম সম্প্রদায়ের এক অন্যতম ধর্মীয় উৎসব। তবে উৎসব-আনন্দের চেয়ে এর মধ্যে নিহিত রয়েছে কুরবানির মহান আদর্শ। হযরত ইবরাহীম (আ.) তাঁর পূত্র ইসমাঈল (আ.) কে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য কুরবানি করার নিয়তের মধ্য দিয়ে পশু কুরবানির রীতি চালু হয়। সে থেকে জিলহজ মাসের ১০ তারিখে পিবিত্র ঈদুল আযহার দিন ও তার পরের দুইদিন সামর্থ্যবানদের জন্য পশু কুরবানি করা ওয়াজিব।

পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ পৃথক বাণী দিয়েছেন। বাণীতে তারা মুসলিম উম্মাহর সবাইকে শুভেচ্ছা জানানোর পাশপাশি বিশ্বের উন্নতি, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করেছেন।

ভিন্ন এক পরিস্থিতিতে এবার কুরাবানির ঈদ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। গতবারও একই পরিস্থিতি ছিল। করোনা মহামারীর কারণে ভয়াবহ এক সংকটের মধ্য দিয়ে সময়টি পার করছি আমরা। ব্যবসা -বানিজ্য প্রায় বন্ধ, শিল্প-কারখানায় উৎপাদন নেমে এসেছে অর্ধেকে। দিনে আনে দিনে খায় এ ধরনের শ্রমজীবী মানুষের জীবন ধারণই হয়ে উঠেছে কষ্টকর। এমন দুর্যোগময় সময়ে ঈদুল আজহার আগমন তাই আমাদেরকে আগের মতো উচ্ছ্বসিত করতে পারছে না। তারপরও বছরের এই দিনটি হাসি-আনন্দে কাটানোর জন্য অনেকেই শহর ছেড়ে ছুটে গেছেন গ্রামে। তবে, গ্রামে যারা  গেছেন তাদের সিংহভাগ স্বাস্থ্যবিধির কোনো তেয়াক্কা করেন নি। একই অবস্থা দেখা গেছে কুরবানির পশুর হাটে। ক্রেতা-বিক্রেতা কেউই স্বাস্থ্যবিধি মানার গরজ বোধ করেন নি। ফলে ঈদের পর করোনা সংক্রমণ আরো বেড়ে যাবার অঅশংকা করছেন জনস্বাস্থ্যবিদগণ। আমাদের মতো অপরিনামদর্শী জাতি পৃথিবীতে আর দ্বিতীয়টি আছে বলে মনে হয় না। নিজেদেরকে সুরক্ষার জন্য সরকার ঘোষিত স্বাস্থবিধি এবং চলাফেরায় বিধিনিষেধ নির্বিকার ভেঙে চলেছে এক শ্রেণীর মানুষ। বলা নিষ্প্রয়োজন, অসচেতন ওইসব মানুষের জন্য গোটা দেশের মানুষের জীবন এখন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।

সরকারের পক্ষ থেকে ঈদ পালনে কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেগুলো যথাযথভাবে পালনের জন্য আমরা সবার প্রতি আহ্বান জানাই। একই সাথে কুরবানির আসল শিক্ষা ত্যাগ স্বীকারে সবাইকে উদ্বুদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানাই। অন্তর থেকে সমস্ত লোভ -লালসা হিংসা-বিদ্বেষকে জবাই করে নিজেকে পরিশুদ্ধ মানুষে পরিণত করতে পারলেই কুরাবানির উদ্দেশ্য সফল হবে, আল্লাহর দরবারে তা কবুল হবে।

ঈদুল আজহা উপলক্ষে গ্রামনগর বার্তার পাঠক, পৃষ্ঠপোষক, বিজ্ঞপনদাতা ও শুভানুধ্যায়ী সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা। ঈদ মুবারক।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত