সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে বিদায়ী আইজিপি

'কারো বিরুদ্ধে আমার কোনো অভিযোগ নেই, আপনারা ভালো থাকবেন'

  গ্রামনগর বার্তা রিপোর্ট

প্রকাশ: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫:৫৪ |  আপডেট  : ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৩:২৮

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, দেশে এক-ধরনের নষ্ট রাজনীতির দুষ্টু চর্চা ছিল, এখনো রয়েছে। এ চর্চায় কেউ কেউ অন্যায়ভাবে আমাকে বিপক্ষে আবিষ্কার করেছে।তবে তাদের বিরুদ্ধে আমার কোনো অভিযোগ নেই, আপনারা ভালো থাকবেন।

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) আইজিপি বেনজীর আহমেদ দীর্ঘ প্রায় সাড়ে ৩৪ বছরের পুলিশের কর্মজীবন শেষে অবসরে যাচ্ছেন। অবসরে যাওয়ার পূর্বে শেষ কর্মদিবসে নিজের বর্নাঢ্য ক্যারিয়ারের নানা অর্জনসহ নানা বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে এ মতবিনিয় করেন তিনি।

যারা বিপক্ষে ভেবেছেন তাদের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই উল্লেখ করে বিদায়ী আইজিপি বলেন, কারণ আমরা সবাই মিলেই বাংলাদেশ। হাতে হাত রেখে সবাই দায়িত্ব পালন করে আমরা সবাই মিলে এগিয়ে যাব।  

তিনি বলেন, আমার ৩৪ বছর ৫ মাস ১৬ দিন কর্মজীবনের মধ্যে ২০১০ সাল থেকে ২০২২ পর্যন্ত ১২ বছর পুলিশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তিনটি পদে দায়িত্ব পালন করেছি। ডিএমপি কমিশনার, র‌্যাব ডিজি ও সর্বশেষ আইজিপি হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে অনেক চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করেছি। এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আপনারা সমর্থন জুগিয়েছেন, দেশবাসীও সমর্থন জুগিয়েছেন। তাই সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

ধারাবাহিক গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্বপালনকালে চেষ্টা করেছি মানুষের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে। চাকরির শেষ দিন মানে আগামীকাল থেকে জীবনের একটি পাতা উল্টিয়ে নতুন পাতা পড়ার চেষ্টা। তার মানে আগামীকাল থেকে দেখা হবে না-কথা হবে না এমনটি নয়। সামাজিক জীব হিসেবে সকলের সঙ্গে যোগাযোগ থাকবে, যেখানেই সুযোগ পাবো একসঙ্গে দায়িত্ব পালন করবো।

আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলাদেশ পুলিশের দুটি বিষয় বর্তমানে সবচেয়ে বেশি আলোচিত হয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, কীভাবে আমরা সফলভাবে করোনা ক্রাইসিস অতিক্রম করেছি এবং সন্ত্রাসবাদ দমনে বাংলাদেশ পুলিশের সাফল্যের বিষয়ে সবাই জানতে চায়। কিছুদিন আগে জাতিসংঘে কাউন্টার টেরোরিজম ডিপার্টমেন্ট আমাদের কাছে জানতে চেয়েছে, আমরা কীভাবে সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় সফল হয়েছি।

পোশাকে এটাই সর্বশেষ প্রেস ব্রিফিং উল্লেখ করে পুলিশ প্রধান বলেন, বর্তমান পুলিশ আগের থেকে অনেক বেশি গণমুখী। আমাকে আপনারা যেভাবে সহযোগিতা করেছেন, একইভাবে পরবর্তীতে দায়িত্বে যারা আসবেন তাদেরকেও সহযোগিতা করবেন।

কারও প্রাণহানির জন্য নয়, নিজেদের আত্মরক্ষার জন্যই পুলিশকে অস্ত্র দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের বিদায়ী মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ।সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘আমি অসংখ্যবার বলেছি পুলিশের কাছে যে অস্ত্র দেওয়া হয় তা তাদের জীবন রক্ষার জন্য। পুলিশ তার দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অস্ত্র ব্যবহার করবে শুধু তার সেফগার্ডের জন্য। কারও প্রাণহানির জন্য নয়।’

পুলিশের গুলি করা অনাকাঙ্ক্ষিত মন্তব্য করে বিদায়ী পুলিশ প্রধান বলেন, ‘পুলিশ দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে শুধুমাত্র জীবন নিরাপত্তার জন্য অস্ত্র ব্যবহার করবে। যেসব ঘটনা ঘটেছে সেগুলোতে ম্যাজিস্ট্রেসি তদন্ত হবে, বিভাগীয় তদন্ত হবে, এছাড়াও যেসব গুলি ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে সেই বিষয়গুলো রাষ্ট্রীয় মেকানিজম দেখবে। আমার কাছে যে অস্ত্রটি আছে সেটি জীবন রক্ষার জন্য। যে সকল ঘটনার অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে দেখতে হবে সেগুলো জীবনরক্ষার জন্য নাকি অন্য কারণে ব্যবহার করা হয়েছে।

‘আমি চ্যালেঞ্জ পছন্দ করি। ‌আমার পুরো ক্যারিয়ারটাই চ্যালেঞ্জের। করোনাকালীন ও আইজিপি থাকা অবস্থায় চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করেছি আসলে এটা গ্লোবাল চ্যালেঞ্জ। আমি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে পছন্দ করেছি এ কারণে যে, চ্যালেঞ্জ থাকলেই আপনি নিজেকে টেস্ট করতে পারবেন। আপনার ক্যাপাসিটি কী, আপনার যোগ্যতা কী, আপনার দক্ষতা কী। আমার নিজের টেস্ট নিজের কাছে দেয়ার সাহস আছে। এ কারণে আমি আমার ফুল ক্যারিয়ারকে ইনজয় করেছি। দেশে-বিদেশে সবখানে আমার ক্যারিয়ারের চ্যালেঞ্জ ছিল। জাতিসংঘে থাকা অবস্থায় গ্লোবাল চ্যালেঞ্জ নিয়েও কাজ করেছি।’-যোগ করেন বিদায়ী পুলিশ প্রধান।

শেষ বয়সের সমাজের জন্য কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করে বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘আইজি হিসেবে কমিশনার হিসেবে রাষ্ট্রের মানুষ আমাকে তৈরি করেছে। বেতন সুযোগ-সুবিধা নিয়েই তো এখানে এসেছি। চাকরি করার সময়ে রাষ্ট্রের জন্য মানুষের জন্য করেছি অবসরকালীন অবশ্যই সমাজের জন্য কিছু করব। সেই সময়ও আপনাদের সঙ্গে আমি কাজ করব। সেটা ক্ষুদ্র হোক তুচ্ছ হোক ব্যক্তি পর্যায়ে হোক আমরা একসঙ্গে কাজ করব। ছোট ছোট কাজ অনেক বড় কিছু এনে দিতে পারে।
 

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত