কানাডীয়দের ভিসা দেওয়া বন্ধ করলো ভারত

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৩:৪৩ |  আপডেট  : ১৯ জুন ২০২৪, ০২:১৫

ভারত-কানাডার সম্পর্ক ক্রমেই আরও খারাপের দিকে যাচ্ছে। পাল্টাপাল্টি কূটনীতিক বহিষ্কারের পর এবার কানাডীয় নাগরিকদের জন্য ভিসা ইস্যু করা স্থগিত করলো ভারত। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই কার্যক্রম স্থগিত থাকবে বলে নিশ্চিত করেছে এনডিটিভি, ইন্ডিয়া টুডেসহ একাধিক ভারতীয় সংবাদমাধ্যম।

বিএলএস ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি জনপ্রিয় ভিসা সেন্টার তাদের ওয়েবসাইটে বলেছে, ভারতীয় দূতাবাস থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিজ্ঞপ্তি: প্রক্রিয়াগত কারণে ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ সালে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ভিসা সেবা স্থগিত থাকবে।

সম্প্রতি খালিস্তানপন্থি শিখ নেতা হরদীপ সিং নিজ্জার হত্যাকাণ্ডে ভারত সরকার জড়িত থাকতে পারে বলে অভিযোগ করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। এ নিয়েই দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কে টানাপোড়েন শুরু হয়েছে।

গত সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) কানাডার হাউজ অব কমন্সের সভায় ট্রুডো বলেন, হরদীপ সিং হত্যাকাণ্ডে ভারত সরকারের সংশ্লিষ্টতার ‘বিশ্বাসযোগ্য’ প্রমাণ খুঁজে পেয়েছে কানাডার গোয়েন্দা সংস্থা।

তিনি বলেন, কানাডার মাটিতে একজন কানাডীয় নাগরিক হত্যায় বিদেশি কোনো সরকারের সংশ্লিষ্টতা আমাদের সার্বভৌমত্বের লঙ্ঘন। স্বাধীন, মুক্ত ও গণতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থা যেভাবে কাজ করে, তার সম্পূর্ণ পরিপন্থি এ ধরনের ঘটনা।

ট্রুডোর এ মন্তব্যের পর কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেলানি জোলি সাংবাদিকদের জানান, এ ঘটনার জেরে পবন কুমার নামে একজন ভারতীয় কূটনীতিককে বহিষ্কার করা হয়েছে।

তবে নিজ্জার হত্যাকাণ্ডে ভারত সরকার জড়িত থাকার গুরুতর এই অভিযোগকে ‘মনগড়া’ এবং ‘উদ্দেশ্য প্রণোদিত’ বলে নাকচ করে দিয়েছে নয়াদিল্লি।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী টুইট করে লিখেছেন, এই ধরনের ভিত্তিহীন অভিযোগ খালিস্তানি সন্ত্রাসী ও উগ্রপন্থিদের ওপর থেকে দৃষ্টি ঘুরিয়ে দেওয়ার প্রচেষ্টা। যারা ভারতের সার্বভৌমত্ব ও ভৌগোলিক অখণ্ডতার প্রতি হুমকি, তাদের কানাডায় আশ্রয় দেওয়া হচ্ছে।

এরপরে মঙ্গলবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ডেকে পাঠায় দিল্লিতে কানাডার রাষ্ট্রদূত ক্যামেরুন ম্যাকেকে। দেশটির এক জ্যেষ্ঠ কূটনীতিককে পাঁচ দিনের মধ্যে ভারত ছাড়তে নির্দেশ দেওয়া হয়। 

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত