সুবর্ণচরে মা ও মেয়ে ধর্ষণ মামলার আসামি হারুন ঢাকায় গ্রেফতার

  নোয়াখালী প্রতিনিধি

প্রকাশ: ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬:২০ |  আপডেট  : ২ মার্চ ২০২৪, ০৯:২২

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে চাঞ্চল্যকর মা-মেয়ে ধর্ষণ মামলার আসামি মো. হারুনকে [৪২] ঢাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন।

বৃহস্পতিবার ৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে নোয়াখালী পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান গ্রেফতারের বিষয়টি বাংলা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেন।

গ্রেফতার মো. হারুন চরওয়াপদা ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের চরকাজী মোখলেছ গ্রামের মৃত বশির আহম্মদের ছেলে। তিনি চাঞ্চল্যকর মা-মেয়ে ধর্ষণ মামলার দুই নম্বর আসামি।

পুলিশ সুপার বলেন, ‘গোপন সংবাদ ও তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের [ডিবি] একটি দল ঢাকার গাবতলী থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে। এ নিয়ে এই মামলার তিন আসামির সবাইকে গ্রেফতার করা হলো।’

এর আগে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি বহিষ্কৃত আওয়ামী লীগ নেতা আবুল খায়ের মুন্সি মেম্বার (৬৭) ও তার সহযোগী মো. মেহেরাজকে (৪৮) গ্রেফতার করে পুলিশ। এদের মধ্যে মেহেরাজ দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন এবং মুন্সি মেম্বারের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

প্রসঙ্গত, সোমবার ৫ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাত ২টার দিকে ঘরের সিঁধ কেটে ভেতরে প্রবেশ করে একজন। পরে সে ঘরের দরজা খুলে দিলে আরও দুই জন ভেতরে প্রবেশ করে। এদের মধ্যে দুই জন পালাক্রমে ওই গৃহবধূকে এবং একজন পাশের কক্ষে তার ১২ বছর বয়সী মেয়েকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে ওই গৃহবধূর হাত-পা ও মুখ বেঁধে ঘরে থাকা স্বর্ণ ও নগদ টাকা লুট করে নিয়ে যায় তারা।

গভীর রাতে শিশুদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে গৃহবধূর বাঁধন খুলে দেয় এবং বিষয়টি জরুরি সেবা ৯৯৯ এর মাধ্যমে চরজব্বার থানায় অবগত করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে।

 

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত