কবি-সাহিত্যিক সমাবেশে আহবান

সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠায় রাজনৈতিক দলের নির্বাচনী ইশতেহারে অন্তর্ভুক্তির দাবী

  প্রেস বিজ্ঞপ্তি

প্রকাশ: ১১ নভেম্বর ২০২৩, ১৭:১০ |  আপডেট  : ১৮ জুন ২০২৪, ১০:২১

‘‘সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়’’ এবং ‘‘জাতীয় সাহিত্য অধিদপ্তর’’ প্রতিষ্ঠার বিষয়টি নির্বাচনী ইশতেহারে অন্তর্ভুক্তির জন্য সকল রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দেশের বরেণ্য কবি—সাহিত্যিকগণ।

১১ নভেম্বর শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়’ নামের সঙ্গে সাহিত্যকে সংযোজনের মাধ্যমে “সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়” নামকরণ  এবং “জাতীয় সাহিত্য অধিদপ্তর” প্রতিষ্ঠার দাবিতে জাতীয় সাহিত্য অধিদপ্তর বাস্তবায়ন পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত কবি—সাহিত্যিক সমাবেশ’ থেকে এ আহ্বান জানানো হয়।

সংগঠনের প্রধান সমন্বয়ক কাজী ছাব্বীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তারা বলেন, দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি বিবেচনায়,  এই মুহূর্তে একটি পূর্ণাঙ্গ সাহিত্য মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠা করা সরকারের জন্য ব্যয়বহুল হতে পারে। যেহেতু সাহিত্য ও সংস্কৃতি অবিচ্ছেদ্য,, তাই বাংলা সাহিত্যের উন্নয়ন ও অগ্রগতির লক্ষ্যে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়কে “সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়” নামকরণের মাধ্যমে এর অধীনে  মন্ত্রণালয়ের বর্তমান জনবল দিয়েই পরিচালনা করা সম্ভব, “জাতীয় সাহিত্য অধিদপ্তর” প্রতিষ্ঠা এখন সময়ের দাবি।

 প্রধান সমন্বয়ক কাজী ছাব্বীর তাঁর বক্তব্যে বলেন, জাতীয় সাহিত্য অধিদপ্তর বাস্তবায়ন পরিষদ কতৃর্ক ইতোমধ্যে  মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় বরাবর ১৫ দফা দাবী সম্বলিত স্মারকলিপি প্রদান এবং জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে উন্মুক্ত সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে  সরকারকে আমাদের দাবী—দাওয়ার বিষয়টি জানানো  হয়েছে। ন্যায্য অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত কবি—সাহিত্যিকদের  আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করা হয়।

মুখপাত্র নীলা মল্লিকের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা কবি ও গবেষক মাহমুদুল হাসান নিজামী, বীরমুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসাইন, ছন্দসম্রাট শাহী সবুর, মো: দেলোয়ার হোসেন, শেখ ইকবাল হাসান স্বপন, সমন্বয়ক  কবি সাজেদা ডুলু, কবি মুজাফফর বাবু, কবি সাইফ সাদী, কবি হাফিজুল ইসলাম, কবি এম এ আলীম, কবি দুলাল কৃষ্ণ বড়াল প্রমুখ।


  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত