চরকেওয়ার ইউনিয়নে বয়স্কভাতা প্রদানে অব্যবস্থাপনা, গাদাগাদিতে বিশৃঙ্খলায় ভোগান্তি

  কাজী দীপু, মুন্সীগঞ্জ

প্রকাশ: ২৯ এপ্রিল ২০২১, ১৯:২২ |  আপডেট  : ১০ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩৪

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার মুন্সীরহাট বাজারস্থ সদরের চরকেওয়ার ইউনিয়ন পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়। তার পাশেই মা-মনি কমিউনিটি সেন্টারে ছোট গুহেরকান্দি গ্রামে ৮২ বছরের বৃদ্ধা হিরন বেগম, টরকী গ্রামের বৃদ্ধা জবেদা বেগমসহ শতাধিক বৃদ্ধা নারীর জটলা সৃষ্টি করে দাড়িয়ে আছেন। দীর্ঘ ৪ ঘন্টা প্রখর রৌদ্রের তাপ মাড়িয়ে অপেক্ষার প্রহর গুনলেও তার বয়স্কভাতা পেতে সিরিয়াল না পেয়ে মনে কষ্ট নিয়ে বসে আছেন মা-মনি কমিউনিটি সেন্টার প্রাঙ্গনে। বেলা বাড়ার সঙ্গে বয়স্ক ভাতা নেওয়ার জন্য শত শত বৃদ্ধা নারী-পুরুষ ভীড় জমিয়েছেন। করোনা সংক্রমনে আক্রান্ত হওয়ার শঙ্কা থাকলেও বিশৃংখল পরিস্থিতিতে গাদাগাদি করেই কার আগে কে বয়স্কভাতার টোকেন নাম্বার সংগ্রহ করবে সেই প্রতিযোগিতায় ব্যস্ত সকলে। 

চরকেওয়ার ইউনিয়ন পরিষদের ৯টি ওয়ার্ডে পৃথক পৃথক ভাবে বয়স্কভাতার টোকেন নাম্বার দেওয়ার ব্যবস্থা নিলে শৃংখলা বজায় থাকতো। অথচ সেই পদক্ষেপ না নিয়ে ৯টি ওয়ার্ডে সকলকে একসঙ্গে বয়স্ক ভাতা দেওয়ার প্রক্রিয়া চালানোর ফলে প্রখর রৌদ্রের তাপে চরম ভোগান্তির কবলে পড়েন শত শত বৃদ্ধা নারী-পুরুষ। এমনকি অব্যবস্থাপনার কারনে গাদাগাদি সারিবদ্ধ ভাবে দাড়িয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষার পর মিলে বয়স্কভাতার টোকেন নাম্বার। এমন পরিস্থিতিতে বয়স্কভাতা নিতে আসা শত শত বৃদ্ধ নারী-পুরুষের করোনা সংক্রমনে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা করছে প্রত্যক্ষদর্শীরা।

বৃদ্ধ শাহাবুদ্দিন বেপারী, আব্দুল লতিফ বেপারী জানালেন, গত বছরের জুলাই মাসে বয়স্কভাতা বাবদ পেয়েছিলেন ৩ হাজার টাকা। চলতি বছরের ১৬ মার্চ পান ১৫০০ টাকা। আর ২৯ এপিলে পরবর্তী বয়স্কভাতার টাকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে। সকাল ৮টা থেকে তাদের মতো অনেক বৃদ্ধ নারী-পুরুষ প্রখর রৌদ্রের তাপ মাড়িয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষার প্রহর গুনেও দুপুর সাড়ে ১২টার সময়ও সিরিয়াল পায়নি তারা।

অব্যবস্থাপনার কারনে বিশৃংখল পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার বিষয়ে জানতে চরকেওয়ার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান জীবনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি মুঠোফোনে রিসিভ করেননি। পরিষদের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা জানান, ইউপি চেয়ারম্যান ঢাকায় অবস্থান করছে। ইউনিয়ন সমাজ সেবা কার্যালয়ের ও পরিষদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের তত্ত্বাবধানে বৃহস্পতিবার দেওয়া হয় বয়স্কভাতার টোকেন নাম্বার। ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যদের অনুপস্থিতির কারনে বিশৃংখল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয় বলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে সমাজসেবা কার্যালয়ের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত