ঘুরে দাঁড়াচ্ছে দেশের পোশাক শিল্প

বাংলাদেশের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে চায় ওয়ালমার্ট

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫:৩৫ |  আপডেট  : ২১ জুন ২০২৪, ০৯:০৮

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেছেন, বাংলাদেশের পোশাক কারখানার অনেকগুলোই বিশ্বের সর্বোচ্চ মানদণ্ডের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। এর ফলে দ্রুততার সঙ্গে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে দেশের পোশাক শিল্প।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমানের সঙ্গে তার গুলশানের কার্যালয়ে সাক্ষাৎকালে কোম্পানিটির এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট এনড্রিয়া অলব্রাইট এ কথা জানান। এ সময় ওয়ালমার্টের গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড বিজনেস ডিপ্লমেসির ভাইস প্রেসিডেন্ট পল ডাইকসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বিশ্বখ্যাত পোশাকের ক্রেতা কোম্পানি ‘ওয়ালমার্ট’ বাংলাদেশের সঙ্গে আরো ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে ইচ্ছুক বলে জানিয়েছেন এমপি সালমান এফ রহমান। 

সালমান এফ রহমান জানান, করোনা ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ পরবর্তী সময়ে দ্রুততার সঙ্গে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে দেশের পোশাক শিল্প। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার পুনরায় ক্ষমতায় আসার প্রেক্ষাপটে সৃষ্ট অধিকতর স্থিতিশীলতা ও ক্রমাগত উন্নয়নের পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশে তাদের ব্যবসায়িক পরিধি বাড়ানোরও ইচ্ছা পোষণ করেছে। এ সময় সালমান এফ রহমান প্রাকৃতিক তন্তুর পাশাপাশি মনুষ্য সৃষ্ট ফাইবার কেন্দ্রিক পোশাক তৈরির ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সঙ্গে ওয়ালমার্টকে কাজ করার আহ্বান জানালে তারা এ ব্যাপারে একত্রে কাজ করার আগ্রহের কথা জানান।

সালমান এফ রহমান জানান, দেশের সব শিল্পকারখানায় নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে। বাংলাদেশের পোশাক কারখানার অনেকগুলোই বিশ্বের সর্বোচ্চ মানদণ্ডের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। কম্প্লায়েন্স ভালোভাবে মেনে চলার ক্ষেত্রে উৎপাদনকারীর পাশাপাশি ক্রেতা-প্রতিষ্ঠানকেও যথাযথ ভূমিকা রাখতে হবে বলে মনে করেন তিনি।

ওয়ালমার্টের এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট এনড্রিয়া অলব্রাইট বলেন, বিশ্বজুড়ে বাংলাদেশের পোশাকের সুনাম রয়েছে। ওয়ালমার্ট দীর্ঘদিন যাবৎ এ দেশের পোশাক আমদানির সঙ্গে জড়িত। করোনা মহামারীকালীন ক্রয়াদেশ কিছুটা কমলেও আশা করি এখন সেটা বাড়বে।

 

সা/ই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত