ঘূর্ণিঝড় ইয়াস: নৌ রুটে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকলেও যাত্রীদের কাছ থেকে ভাড়া আদায়

  শফিক স্বপন,মাদারীপুর

প্রকাশ: ২৬ মে ২০২১, ১৬:৩৩ |  আপডেট  : ১৮ মে ২০২৪, ২০:২০

ঘূর্ণিঝড় ইয়াস এর কারনে বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে বুধবার (২৬ মে) ভোর থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে । তবে ঘাটে ঢাকা মুখী যাত্রীরা ভিড় করলে ইজারাদারের লোকজন যাত্রীদের কাছ থেকে ভাড়া আদায় করে নেয়নএবং এখনই ফেরি ছেড়ে যাবে বলে যাত্রী ভাড়া বাবদ ২৫ টাকা মুল্যের একটি টিকিট হাতে ধরিয়ে দেন। দীর্ঘক্ষন অপেক্ষারপর ফেরী থেকে নেমে যাত্রীরা ফিরে যাচ্ছেন যার যার বাড়িতে। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এমনই অভিযোগে করে বাংলা বাজার ঘাট থেকে ফিরে যাওয়া অধিকাংশ যাত্রীর।বাংলাবাজার ফেরিঘাটের বিআইডব্লিউটিএর অফিসিয়াল নম্বরে ফোন দিলে নাম প্রকাশ না করে দায়িত্বরত এক কর্তকর্তা বুধবার (২৬ মে) সকালে বলেন, যাত্রীদের ফেরিতে না উঠতে মাইকিং করা হচ্ছে। তারপরও যাত্রীরা জোর করে ফেরিতে উঠে যাচ্ছে। যাত্রীদের তো আর পিটিয়ে নামানো যায় না। টিকিট কেন কাটা হচ্ছে জানতে চাইলে তিনি বলেন এ বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। তবে আপনি কোন ঘাটে আছেন, জানান আমি ব্যপারটা দেখছি ।

বাংলাবাজার ঘাট সূত্রে জানা গেছে, বুধবার ভোর থেকেই ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। ঢাকাগামী যাত্রীরা ভোর থেকেই ঘাটে অপেক্ষা করছেন। এই সুযোগে ঘাটের ইজারাদার ভাড়া আদায় করে নিচ্ছেন।

এদিকে ঢাকাগামী যাত্রী একটি কোম্পনীর টেকনিক ইঞ্জিনিয়ার তৌকির আহম্মেদ সোহান জানান, সকালে ফেরি চলাচল করছে এমন খবর পেয়েই ঢাকা যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়ে ঘাটে এসেছি। এসে দেখি অনেক লোকজন, মোটরসাইকেল ফেরিতে উঠে রয়েছে। আমি ও আমার বড় ভাই ফেরিতে উঠবো এমন সময় ঘাটের লোকজন টিকিট চাইলে ৫০ টাকা দিয়ে দুটো টিকিট নিয়ে ফেরির ৪ র্থ তলায় উঠলাম। আমার সাথে সাথে অনেকেই ফেরির ভাড়া দিয়ে উঠে বসে আছেন। তবে ফেরি ছাড়ছে না।  

বার বার ঘাটের অফিসিয়াল নাম্বারে ফোন তরে ফেরি চলাচলের বিষয়ে জানতে চাইলে দুপুর সাড়ে এগারোটায় জানান, পরবর্তী নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত ফেরি চলাচল বন্ধ থাকবে। ফেরিতে ওঠার যাত্রীদের ফেরি ভাড়ার টাকা ব্যপারে জানতে চাইলে তিনি কিছুই জানেন না বলে জানান।

ঢাকাগামী আরেক যাত্রী সাগর বলেন, ঢাকা যাওয়ার উদ্দেশে ঘাটে এসেছি। পঁচিশ টাকা ভাড়া দিয়ে ফেরিতে উঠেছি। কিন্তু ফেরি বন্ধ বলতেছে এখন। ভাড়া নেওয়ার আগে তো বলে না ফেরি বন্ধ। তাছাড়া ইতোপূর্বে ‘লকডাউন নৌযান বন্ধ এমন ঘোষণা থাকার পরেও কিছু কিছু নৌযান চলেছে, সেই আশায় গতরাত থেকে হাজার হাজার যাত্রী পন্টুনে ভিড় করছে। কালকে রাত থেকে অনেকে অপেক্ষা করছে।

বিআইডব্লিউটিসির মেরিন কর্মকর্তা (শিমুলিয়া) আহমদ আলী বলেন, পদ্মা উত্তাল থাকায় ভোর থেকে সব ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফেরি বন্ধ থাকার পরও টিকিট কেটে যাত্রীদের কেন ফেরিতে উঠাচ্ছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি এড়িয়ে যান।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত