গাজীপুরে গুলিতে আহত আরেক পোশাকশ্রমিকের মৃত্যু

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১২ নভেম্বর ২০২৩, ১১:৫৪ |  আপডেট  : ২১ মে ২০২৪, ০৬:৫১

গাজীপুরে বেতন–ভাতা বাড়ানোর দাবিতে জরুল কোনাবাড়ি এলাকায় বিক্ষোভের সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরেক শ্রমিক মারা গেছেন। তাঁর নাম জামাল উদ্দিন (৩৮)।

জামাল উদ্দিন নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া থানার ঘাসালি বাজার এলাকার মৃত চান মিয়ার ছেলে। তিনি ইসলাম গার্মেন্টসের সুপারভাইজার ছিলেন।

৮ নভেম্বর ঘটনার দিন গুলিতে ঘটনাস্থলেই মারা যান মোসা. আঞ্জুয়ারা খাতুন (২৪) নামে এক নারী পোশাকশ্রমিক। এনিয়ে এই ঘটনায় দুই শ্রমিকের মৃত্যু হলো। ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জামাল উদ্দিনের মারা যাওয়ার তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, জামাল উদ্দিন শনিবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আইসিইউতে মারা যান। মরদেহ জরুরি বিভাগের মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানা–পুলিশকে জানানো হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় মজুরি বাড়ানোর দাবিতে পোশাক কারখানার শ্রমিকরা সম্প্রতি বিক্ষোভ করছেন। গত মঙ্গলবার পোশাকশ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি সাড়ে ১২ হাজার টাকা নির্ধারণ করে সরকার। কিন্তু এতে সন্তুষ্ট না হয়ে বুধবার সকাল থেকে কোনাবাড়ি, জরুন ও বাইমাইলসহ বিভিন্ন এলাকায় কয়েকটি কারখানার শ্রমিকরা আবারও বিক্ষোভ শুরু করেন। একপর্যায়ে শ্রমিকেরা বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করে কাঠ ও টায়ারে আগুন ধরিয়ে দেয়। এছাড়া বিভিন্ন যানবাহন ভাঙচুরের চেষ্টা করে তারা। 

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে টিয়ার শেল ও সাউন্ড গ্রেনেড নিক্ষেপ করে পুলিশ। শ্রমিকেরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। এসময় শ্রমিক-পুলিশের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়াও হয়। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। তাদের কয়েকজনকে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। আহতদের মধ্যে আঞ্জুয়ারা খাতুন ঘটনাস্থলেই মারা যান এবং জামাল উদ্দিন গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

কা/আ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত