শীতকালে সুস্থ্য থাকার উপায়

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ৬ নভেম্বর ২০২২, ১৩:৩৫ |  আপডেট  : ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০১:১৩

ফাইল ছবি

বছর ঘুরে শীতকাল দ্বারে এসে উপস্থিত। এই সময় ত্বক রুক্ষ হয়ে যায় এবং শরীরে রোগ ব্যাধির প্রবণতা বাড়তে থাকে। তাই আনন্দ-উৎসবের সাথে সাথে এইসময় নিজের স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়া প্রয়োজন।

ঋতু পরিবর্তনের ফলে স্বাস্থ্য সমস্যার প্রবণতা প্রবলভাবে দেখা দেয়। ভাইরাল ফ্লু, সর্দি, কাশি, শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত ব্যাধি, মৌসুমি অ্যালার্জি ইত্যাদি হলো শীতের খুব সাধারণ রোগ। এই শীতের মৌসুমে ফিট এবং সক্রিয় থাকার জন্য রইলো কয়েকটি সেরা টিপস।ত

১. শীতকালে জলবায়ু রুক্ষ ও শুষ্ক হওয়ায় আমাদের ত্বক ফাটে। তাই ত্বক ভালো রাখতে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে। দিনে অন্তত ৫ থেকে ৬ লিটার জল পান করুন।

২. পানীয় হিসেবে ভেষজ চা পান করুন। লেবু ও ক্যামোমিলের মতো ভেষজ চা আমাদের স্নায়ুকে শান্ত করে এবং শরীরকে শিথিল করে। ফলে হতাশা, উদ্বেগ কমে ও ভালো ঘুম হয়।

৩. চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ভিটামিন জাতীয় ওষুধ খেতে পারেন।

৪. বেশি পরিমাণ ফাইবার যুক্ত খাবার খান। আপেল, ওটস এবং বাদাম ফাইবার যুক্ত খাবার। এগুলো শরীরের ওজন এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা হ্রাস করে। ডায়াবেটিসের বিরুদ্ধে লড়াই করে। বয়স্কদের জন্য এগুলো খুব গুরুত্বপূর্ণ।

৫. ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার এবং লেবু জাতীয় ফল সেবন করুন। জিঙ্ক জাতীয় খাবার খান। এই খাবারগুলো রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

৬. শীতের সময় ডায়েটে রাখুন প্রচুর ফলমূল ও শাকসবজি। এগুলোতে থাকা পুষ্টি আমাদের সুস্থ রাখে।

৭. শীতকালীন খাবার হিসেবে মাশরুম খান। এতে ভিটামিন বি, সি, ডি এবং ক্যালসিয়াম,পটাশিয়াম, মিনারেল, আরগোথিওনিন নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

৮. শীতের সময় আমরা বেশি অলস ও নিদ্রাহীনতা অনুভব করি। তাই শীতকালে সঠিক নিদ্রার প্রয়োজন। তবে সতেজ এবং চাপমুক্ত থাকা যায়।

৯. শীতকালে প্রতিদিন শরীর চর্চা করা গুরুত্বপূর্ণ। এটি শরীরকে উষ্ণ রাখতে সাহায্য করে এবং আপনার বিপাক, রক্ত প্রবাহকে উন্নত করে।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত