যাত্রাবাড়ীতে শুটার লিটন গ্রেপ্তার

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৬ মে ২০২৩, ১৩:০৬ |  আপডেট  : ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ১১:০৩

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মাদক সম্রাট, শুটার লিটনকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন [র‌্যাব]। সোমবার [১৫ মে] দিবাগত রাতে রাজধানীর দক্ষিণ যাত্রাবাড়ীর বিজিবি মার্কেট এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ সময় তার কাছ থেকে ১টি বিদেশি পিস্তল, ১টি ম্যাগাজিন, ৩ রাউন্ড গুলি, ৩৪৮ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ১টি মোবাইল ফোন ও মাদক বিক্রয়ের ৫১ হাজার ৫০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তার ইয়াসিন উদ্দিন লিটন ওরফে লিটন আখন্দ ওরফে শুটার লিটন [৩৬] কুমিল্লার মেঘনা থানাধীন চণ্ডিপুরের মৃত বদরুজ্জামান বাদলের ছেলে।

র‌্যাব-১০ এর সহকারী পুলিশ সুপার [এএসপি] এনায়েত কবীর সোয়েব জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, গ্রেপ্তার শুটার লিটন রাজধানীর যাত্রাবাড়ী, শ্যামপুর, মুগদা, পল্টন, মতিঝিল, কদমতলী ও কেরানীগঞ্জসহ ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকায় মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, অবৈধ ভূমি দখল, ধর্ষণ ও হত্যাসহ বিভিন্ন প্রকার সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালিত করে আসছিল।

তার কাজে কেউ বাধা দিলে শুটার লিটন মারধর করে বিভিন্ন প্রকার ভয়-ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকি দিত।

জিজ্ঞাসাবাদে আরও জানা যায়, লিটন দেশের বিভিন্ন সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে রাজধানী ঢাকাসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করে আসছিল। লিটন অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে এলাকায় মাদক ব্যবসা পরিচালনা করত। যার কারণে কেউ ভয়ে তার বিরুদ্ধে মুখ খুলতে সাহস করত না।

গ্রেপ্তার লিটন আরও জানায়, সে বিভিন্ন অর্থবিত্ত ও ব্যবসায়ীদের টার্গেট করে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিসহ বিভিন্ন প্রকার ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করত। দাবিকৃত চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে লিটন তাদের মারধরসহ বিভিন্ন শারীরিক নির্যাতন করত। 

লিটন চুক্তিতে হত্যাসহ মোটা অংকের টাকার বিনিময় যে কাউকে হত্যা করতে দিধাবোধ করত না। যার কারণে সে শুটার লিটন নামে খ্যাত। লিটনের বিরুদ্ধে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী, মুগদা ও পল্টন থানায় ১টি হত্যা মামলা, ২টি অস্ত্র মামলা, ৩টি মাদক মামলা এবং ছিনতাই ও চাঁজাবাজিসহ মোট সাতটি মামলা রয়েছে বলে জানা যায়।

তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত