বান্দরবানের থানচিতে পর্যটক ভ্রমণে সাত দিনের নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১০ জানুয়ারি ২০২৩, ১৩:৫২ |  আপডেট  : ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৮:৩৯

নিরাপত্তার কারণে বান্দরবানের থানচি উপজেলায় পর্যটক ভ্রমণে সাত দিনের নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। আগামীকাল বুধবার থেকে এ নিষেধাজ্ঞা শুরু, চলবে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি স্বাক্ষরিত এক গণবিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

এর আগে গত ১১ ডিসেম্বর থেকে বান্দরবানের রুমা ও রোয়াংছড়ি উপজেলায় অনির্দিষ্টকালের জন্য পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। ওই দুই উপজেলায় চলমান নিষেধাজ্ঞা বহাল বলে গণবিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বান্দরবান সেনা রিজিওন সদর দপ্তরের ৯ জানুয়ারি চিঠিতে বলেছে, থানচি উপজেলা ও উপজেলাসংলগ্ন এলাকায় বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসীদের উপস্থিতি লক্ষ করা গেছে। এ জন্য সেখানে সেনা টহল কার্যক্রম ও গোয়েন্দা তৎপরতা অব্যাহত আছে। তাই নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনা করে থানচি উপজেলায় ১১ থেকে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত দেশি-বিদেশি পর্যটক ভ্রমণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জেলার সাতটি উপজেলার মধ্যে রুমা, রোয়াংছড়ি ও থানচি উপজেলা ছাড়া অন্য চারটি উপজেলায় আগের মতোই পর্যটকেরা ভ্রমণ করতে পারবেন।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রোয়াংছড়ি ও রুমা উপজেলার দুর্গম পাহাড়ে কুকি–চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ) নামে একটি সন্ত্রাসী সংগঠনের গোপন আস্তানা গড়ে উঠেছে। এসব আস্তানায় সমতলের জঙ্গিগোষ্ঠীর অবস্থান ও প্রশিক্ষণের তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চলমান। জঙ্গিবিরোধী এসব অভিযানে জামায়াতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্কীয়া ও কেএনএফের কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়েছে। এবার থানচিকে অভিযানের আওতায় আনা হয়েছে। অভিযান চলাকালে পর্যটকদের নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনা করে ভ্রমণের ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৯ অক্টোবর রোয়াংছড়ি ও রুমা উপজেলায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সমন্বিত জঙ্গিবিরোধী অভিযান শুরুর পর নিরাপত্তার বিষয় বিবেচনা করে ১৭ অক্টোবর থেকে ওই দুই উপজেলায় পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। ২৩ অক্টোবর থানচি ও আলীকদমকে অভিযানের আওতায় নেওয়া হয়। এ সময় থানচি ও আলীকদমে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। পরে ১২ নভেম্বর আলীকদম ও ১৬ নভেম্বর থানচিকে ভ্রমণ নিষেজ্ঞাধা থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছিল।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত