নানান কর্মসূচিতে চতুর্থ জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালন

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪:২৯ |  আপডেট  : ১০ জুন ২০২৪, ১২:৫৯

নানার কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে চতুর্থ জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) আয়োজনে এবং পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহায়তায় কর্মসূচির মধ্যে ছিল র‌্যালি, শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা এবং আলোচনা সভা। এবার দিবসটির প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘স্মার্ট পরিসংখ্যান, উন্নয়নের সোপান’। এ উপলক্ষ্যে পৃথক বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিবিএস অডিটোরিয়ামে দিবসের মূল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবছরে মতো এবারও দেশব্যাপী দিবসটি পালন করা হয়েছে। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন। সভাপতিত্ব করেন বিবিএসের উপমহাপরিচালক পরিমল চন্দ্র বসু। বক্তব্য রাখেন পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. মইনুল হক আনছারী, কৃষি উইংয়ের পরিচালক আলাউদ্দিন আল আজাদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. সৈয়দ শাহাদাত হোসেন, কম্পিউটার উইংয়ের পরিচালক কবির উদ্দিন এবং মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ন্যাশনাল অ্যাকাউিন্টিং উইংয়ের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক রফিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে একটি ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হয়েছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. শাহনাজ আরেফিন বলেন, ২০১৩ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি জাতীয় সংসদে পরিসংখ্যান আইন পাস হয়। এ আইনের ভিত্তিতে দেশের পরিসংখ্যান ব্যবস্থায় ব্যাপক অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে। এই দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে ২০২০ সালের ৮ জুন মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকে প্রতিবছর ২৭ ফেব্রুয়ারিকে জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সঠিক পরিসংখ্যান টেকসই উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রণয়ন ও সিদ্ধান্ত গ্রহণের ভিত্তি হিসেবে কাজ করে। এই গুরুত্ব বিবেচনা করেই ১৯৭৪ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো প্রতিষ্ঠা করেন। তখন থেকেই এগিয়ে যাচ্ছে এই প্রতিষ্ঠানটি।

এর আগে জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস উপলক্ষ্যে দেওয়া বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন বলেন, আমি মনে করি ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে তথ্য সংগ্রহ, সংকলন ও প্রকাশের মাধ্যমে বিবিএস স্মার্ট বাংলাদেশ ও সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গঠনে সরকারের প্রচেষ্টাকে ত্বরান্বিত করতে পারে। এ পরিপ্রেক্ষিতে এবারের প্রতিপাদ্য ‘স্মার্ট পরিসংখ্যান, উন্নয়নের সোপান’ যথার্থ ও সময়োপযোগী হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার দেওয়া বাণীতে বলেছেন, অপ্রপতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ আজ বিশ্বে রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃত। এমডিজির লক্ষ্যসমুহ সফল বাস্তবায়নের পর এসডিজির লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্য আমরা কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে রূপান্তর এবং ২১০০ সালের মধ্যে ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নের জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আর্থ-সামাজিক সূচকে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার পাশাপাশি অনেক উন্নত দেশের চেয়েও এগিয়ে।

সা/ই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত