নলিয়া রেলওয়ে স্টেশনে প্রথমবারের মতো যাত্রাবিরতি শুরু

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫:৫৪ |  আপডেট  : ১০ জুন ২০২৪, ১৩:০৯

রাজশাহী-গোবরা-রাজশাহী রুটের ‘টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নলিয়াগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে প্রথমবারের মতো যাত্রাবিরতি শুরু করেছে। বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল পৌনে ৯টায় গোপালগঞ্জের গোবরা থেকে ছেড়ে আসা ট্রেনটি নলিয়াগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রাবিরতি দেয়। এখন থেকে ট্রেনটি নিয়মিত যাত্রাবিরতি দেবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ রেলওয়ের (পশ্চিম) চিফ অপারেটিং সুপারিনটেন্ড মো. আব্দুল আওয়াল।

সকালে ট্রেনের যাত্রাবিরতির সংবাদে ট্রেনে উঠতে এবং সেটি দেখতে উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে হাজারো মানুষ ভিড় করেন। ট্রেন আসার পূর্বে নলিয়াগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনসহ আশেপাশের এলাকায় মানুষের ঢল নামে। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী টিকেট বিক্রির কার্যক্রম শুরু করেন ভারপ্রাপ্ত স্টেশন মাস্টার। প্রথমবারের মতো নলিয়াগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেসের টিকিট পেয়ে উচ্ছ্বসিত যাত্রীরা। কাজের পাশাপাশি ট্রেনে চড়ার জন্য টিকিট ক্রয় করেন সাধারণ মানুষ। নলিয়াগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন থেকে সকল যাত্রীদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও বালিয়াকান্দি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এ কে এম ফরিদ হোসেন মিয়াসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা। উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আসা সাধারণ মানুষের জন্য খাবারের আয়োজন করেন তারা। বিভিন্ন স্থান থেকে আসে বেশ কয়েকটি বাদক দল।

গত দুই রাত ধরে জামালপুর ইউনিয়নসহ পার্শ্ববর্তী ইউনিয়নের মানুষের মধ্যে উৎসব বিরাজ করছে। রাতে সাধারণ মানুষ স্টেশনে আসছে আলোকসজ্জা দেখতে।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মো. জিল্লুল হাকিম কথা দিয়েছিলেন রাজবাড়ী-২ আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হলে নলিয়াগ্রামের ঐতিহ্যবাহী রেলস্টেশনে ‘টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেস’ ট্রেনটির যাত্রাবিরতির ব্যবস্থা করবেন। তিনি বিপুল ভোটে এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর রেলমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন। দায়িত্ব পেয়ে তিনি এই স্টেশনে ট্রেনের যাত্রাবিরতির ব্যবস্থা করেছেন। রেলমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সাধারণ মানুষ।

সকাল ৮টায় নলিয়া রেলস্টেশন এলাকায় ট্রেনের যাত্রাবিরতি উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম ফরিদ হোসেন বাবুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বাংলাদেশ রেলওয়ের বিভাগীয় কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন। এ সময় অন্যদের মধ্যে বালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. মনিরুজ্জামান মনির, বহরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. রেজাউল করিম, জামালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মজিবর রহমান বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক শামিম মিয়া, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক রাসেল খান রিজু বক্তব্য দেন।

জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম ফরিদ হোসেন বাবু বলেন, মানুষের চাওয়া ছিল ‘টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি যেন নলিয়াগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রাবিরতি দেয়। সেটি মাননীয় রেলমন্ত্রী ব্যবস্থা করেছেন। রেলস্টেশন থেকে বালিয়াকান্দি, মধুখালী ও রাজবাড়ী সদরের মানুষ রেলসেবা পাবেন।

ট্রেনটি সকাল ৮টা ৫১ মিনিটে রাজশাহীর উদ্দেশ্যে এবং সন্ধ্যা ৭টা ৩৬ মিনিটে গোবরার উদ্দেশ্যে যাওয়ার সময় নলিয়াগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রাবিরতি করবে। এ ছাড়া ভাটিয়াপাড়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি আগের নিয়মে এই স্টেশনে যাত্রাবিরতি করবে।

 

 

সা/ই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত