কুইন অব রক অ্যান্ড রোল আর নেই

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২৫ মে ২০২৩, ১৪:২৬ |  আপডেট  : ৯ জুন ২০২৩, ১৮:৫৬

তাকে বলা হয় ‘কুইন অব রক অ্যান্ড রোল’। রক মিউজিকে সাধারণত গায়কদের দাপট, জনপ্রিয়তা দেখা যায়। তবে সেই ধারায় পরিবর্তন এনেছেন তিনি। বিশ্বজুড়ে রক, আর অ্যান্ড বি, পপ ও রক অ্যান্ড রোল ঘরানার গানে অসামান্য সাফল্য অর্জন করেছেন।

কিংবদন্তি সেই সংগীতশিল্পী টিনা টার্নার আর নেই। বুধবার (২৪ মে) সুইজারল্যান্ডের কুস্ন্যাটে নিজ বাড়িতে তার মৃত্যু হয়েছে। তার বয়স হয়েছিল ৮৩ বছর। শিল্পীর মুখপাত্র বার্নার্ড ডহার্টি মৃত্যুর খবর প্রকাশ করেছেন। তবে তার মৃত্যুর কারণ জানানো হয়নি। জানা যায়, সম্প্রতি তার স্ট্রোক হয়েছিল। এছাড়া অনেক দিন ধরে কিডনি জটিলতায়ও ভুগছিলেন গায়িকা।

শক্তিশালী কণ্ঠ, আবেদনময়ী উপস্থাপন এবং বিধ্বংসী এনার্জির সুবাদে টিনা টার্নারের লাইভ পারফর্মেন্সগুলো অনন্য হয়ে উঠতো। সর্বকালের সবচেয়ে সফল সংগীতশিল্পীদের একজন হিসেবে বিবেচিত তিনি।

টিনা টার্নার তার দীর্ঘ পঞ্চাশ বছরের সংগীত ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন ১৯৫০-এর দশকের শেষ দিকে, যখন তিনি স্কুলের ছাত্রী। ওই সময় তিনি ‘কিংস অব রিদম’ নামে একটি ব্যান্ডের হয়ে গান শুরু করেছিলেন। প্রথমে অবশ্য তিনি অতিথি গায়ক ছিলেন। কিন্তু নিজের অনবদ্য পরিবেশনার সুবাদে অল্প সময়ের মধ্যেই ব্যান্ডের মূল আকর্ষণে পরিণত হন তিনি।

১৯৬০ সালে ‘আ ফুল ইন লাভ’ গানটির মাধ্যমে একক গায়িকা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন টিনা টার্নার। এতে তার সঙ্গে পারফর্ম করেছেন তার প্রথম স্বামী ইক টার্নার। এই গানটিকে সংগীত ইতিহাসের ‘সবচেয়ে শক্তিশালী লাইভ পরিবেশনা’ বলে মনে করা হয়।

মূলত ষাটের দশকেই টিনার জনপ্রিয়তা বিস্তৃত হয়। যা ক্রমশ আকাশ ছুঁয়ে ফেলে। তার গানের রেকর্ড ১০০ মিলিয়নের বেশি বিক্রি হয়েছে। যার ফলে সর্বকালের ‘বেস্ট সেলিং আর্টিস্ট’-দের একজন তিনি। বর্ণিল ক্যারিয়ারে ১২টি গ্র্যামি অর্জন করেছেন টিনা। তিনিই প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ সংগীতশিল্পী ও নারী, যিনি বিখ্যাত ম্যাগাজিন ‘রোলিং স্টোন’র প্রচ্ছদে জায়গা করে নিয়েছিলেন।

ব্যক্তিগত জীবনে ১৯৬২ সালে ইকে টার্নারকে বিয়ে করেছিলেন টিনা টার্নার। ১৯৭৮ সালে তাদের বিচ্ছেদ হয়। এরপর ২০১৩ সালে এরউইন বাকের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন গায়িকা। তিনি চার সন্তানের মা।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত