করোনায় এক বছরে নতুন করে গরিব আড়াই কোটি মানুষ: জরিপ

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ২ আগস্ট ২০২১, ০৯:৫৮ |  আপডেট  : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৩৬

টানা লকডাউনে টিকে থাকার প্রশ্নে খেটে খাওয়া মানুষের জীবন-জীবিকা। কাজের অভাবে বেকারও হয়েছেন অনেকে। পিপিআরসি আর ব্রাকের সাম্প্রতিক জরিপে, করোনায় এক বছরে দেশে নতুন করে গরিব হয়েছেন আড়াই কোটি মানুষ। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, দফায় দফায় আসা লকডাউনে নিম্নআয়ের মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ব্যর্থ প্রশাসন।
 
প্রতিদিন প্রায় সাড়ে পাঁচশের বেশি দিনমজুরের কাজের যোগান মেলে গাবতলী বালুঘাটে। কাজের অপেক্ষায় ভোর ছয়টা থেকে অপেক্ষা করেন তারা। কাজ না পেলে পরিবারসহ অনাহারেই থাকতে হয় তাদের।

লকডাইনে গাবতলী ঘাটে চলমান বালু আর পাথরের ফেরী আসছে কম। ফলে কাজ নেমেছে অর্ধেকে। তাই ঘাটে অলস দ্বিধা আর অনিশ্চিয়তায় বসে থাকেন অনেক দিনমজুর। অর্ধেক বেলা গড়িয়ে কেউ পেয়েছেন কাজ, কেউবা বসে আছেন ঘাটে নতুন বালুর ফেরি ফেরার। 
 
দীর্ঘ এক বছরে করোনার এমন কঠিন বাস্তবতায় নির্দিষ্ট বেতনের চাকরি হারিয়ে দিনজুরের খাতায় নাম লিখিয়েছেন অনেকেই। কেউ কেউ বাধ্য হয়েই নেমেছেন রিকশা নিয়ে।
 
পিপিআরসি আর ব্রাক পরিচালিত যৌথ এক জরিপে দেখা যায়, করোনার এক বছরে দেশের ১৪ দশমিক ৭৫ শতাংশ মানুষের জিবনমান নতুন করে দরিদ্র সীমার নিচে নেমেছে। যার প্রভাবে ২ কোটি ৪৫ লাখ নতুন মানুষ গরিব হয়েছেন।  একই সঙ্গে (সবশ্রেনী) ঋণ গ্রহণের পরিমান হয়েছে দ্বিগুন।  

অর্থনীতিবিদদের মতে, বরাবরের মতোই দিনমজুর খেটে খাওয়া মানুষকে খাদ্য নিশ্চয়তা দিতে ব্যর্থ প্রশাসন ও নীতিনির্ধারকরা।

আয় কমলেও খাদ্য বহির্ভূত ব্যয় গত বছরের জুনের তুলনায় এ বছরের মার্চে দাঁড়িয়েছে দ্বিগুন। 

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত