আবরার হত্যাকাণ্ডের রায় দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি বুয়েট শিক্ষার্থীদের

  গ্রামনগর বার্তা রিপোর্ট

প্রকাশ: ৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৫:৫২ |  আপডেট  : ১৯ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৫১

বুয়েটের আবরার হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড ও যাবজ্জীবন পাওয়া আসামিদের সাজা দ্রুত বাস্তবায়ন চান বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা। তারা বলছেন, রায়ে চার্জশিটভুক্ত ২৫ আসামির মধ্যে ২০ জনের মৃত্যুদণ্ড এবং বাকি ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়ার মাধ্যমে ন্যয়বিচার হয়েছে। এখন দ্রুত এই রায় বাস্তবায়ন করতে হবে।

বুধবার আবরার হত্যা মামলার রায়ের পর দুপুর ২টার দিকে শতাধিক শিক্ষার্থী বুয়েট শহীদ মিনারে দাঁড়িয়ে এ দাবি জানান। এর আগে বেলা সোয়া ১২টার দিকে ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবু জাফর কামরুজ্জামান আবরার হত্যাকাণ্ডের রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন: মেহেদী হাসান রাসেল, অনিক সরকার অরফে অপু, মেহেদী হাসান রবিন ওরফে শান্ত, ইফতি মোশাররফ সকাল, মনিরুজ্জামান মনির, মাজেদুর রহমান অরফে মাজেদ, মুজাহিদুর রহমান অরফে মুজাহিদ, খন্দকার তাবাকারুল ইসলাম অরফে তানভির, হোসেন মোহাম্মদ তোহা, শামীম বিল্লাহ, সাদাত ওরফে এ এস এম নাজমুস সাদাত, মুনতাসির আল জেমী, মিজানুর রহমান অরফে মিজান, এস এম মাহমুদ সেতু, সামসুল আরেফিন রাফাত, মোর্শেদ ওরফে মোর্শেদ অমর্ত্য ইসলাম, এহতেশামুল রাব্বি অরফে তানিম, মোহাম্মদ মোর্শেদ উজ্জামান মন্ডল প্রকাশ জিসান, মুজতবা রাফিদ এবং মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন। মৃত্যুদণ্ডদের মধ্যে এহতেশামুল রাব্বি অরফে তানিম, মোহাম্মদ মোর্শেদ উজ্জামান মন্ডল প্রকাশ জিসান ও মুজতবা রাফিদ পলাতক আছেন।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন: অমিত সাহা, ইসতিয়াক আহমেদ মুন্না, আকাশ হোসেন, মুহতাসিম ফুয়াদ ও মোয়াজ ওরফে মোয়াজ আবু হোরায়য়রা।

এরপর শিক্ষার্থীরা শহীদ মিনারে জড়ো হয়ে রায় দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানান। শিক্ষার্থীরা বলেন, আমরা, বুয়েটের সাধারণ শিক্ষার্থীরা, শুরু থেকেই এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার বিচারের দাবিতে সোচ্চার ছিলাম এবং একই সঙ্গে বিজ্ঞ আদালতের প্রতি আস্থাশীল ছিলাম। আমরা মনে করি, এই রায়ের মাধ্যমে সবার আস্থার প্রতিফলন ঘটেছে। আমরা এই রায় দ্রুত কার্যকরের দাবি জানাচ্ছি। আবরারের পরিবারের সাথে একাত্মতা পোষণ করে আশাবাদ ব্যক্ত করছি যে, এই রায় শেষ পর্যন্ত বহাল থাকবে এবং এই রায় বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

ভবিষ্যতে বাংলাদেশের কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্র শিক্ষক কাউকেই যেন রাজনৈতিক অপসংস্কৃতির বলি না হতে হয় এবং সব ক্ষেত্রে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় থাকে সে আশা প্রকাশ করেন শিক্ষার্থীরা।

এসময় তারা পলাতক তিন আসামি- এহতেশামুল রাব্বি তানিম, মুজতবা রাফিদ, মোর্শেদ-উজ-জামান মন্ডল জিসানকে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

এর আগে দুপুর দেড়টায় বুয়েটের উপাচার্য সত্য প্রসাদ মজুমদার আবরার হত্যা মামলার রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে বিবৃতি দেন। এতে তিনি রায় দ্রুততম সময়ের মধ্যে বাস্তবায়নের দাবি জানান।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত