আগামীতে অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের দাম বেঁধে দেওয়া হবে

  অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১০ মার্চ ২০২৪, ১৫:০৪ |  আপডেট  : ২২ মে ২০২৪, ০৬:৪৩

আগামীতে অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের একটি পূর্ণাঙ্গ তালিকা করে দাম বেঁধে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু।

রোববার ১০ মার্চ সচিবালয়ে কৃষিপণ্য সরবরাহে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) এবং রাশিয়ার কৃষি মন্ত্রণালয়ের ‘প্রোডিনটর্গ’ এর সঙ্গে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী এ কথা জানান। তিনি বলেন, সংযুক্ত আরব আমিরাতে দেখলাম ১৮টি অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের রাষ্ট্রীয় সার্কুলার দিয়ে দিয়েছে, এই পণ্যগুলোর দাম কেউ এ মাসে (রমজান) বাড়াতে পারবে না।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা এবার হয়তো পারি নাই। ইনশাআল্লাহ আমাদের সাপ্লাই চেইন ইম্প্রুভ ও পর্যাপ্ত পরিমাণে সরবরাহ নিশ্চিত করে আগামীতে কেবিনেটের অনুমোদন নিয়ে অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের একটা কমপ্লিট লিস্ট তৈরি করবো। সেই অনুযায়ী সাপ্লাই বাড়ানো এবং পণ্যের নির্ধারিত দাম আমরা যাতে ঠিক করতে পারি।

বাজার সহনীয় পর্যায়ে রাখার চেষ্টা করার পরও তেমন প্রভাব না পড়ার- বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী জানান, দায়িত্ব নেওয়ার পরপরই যারা রোজার অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আমদানি ও উৎপাদন করেন তাদের সঙ্গে বসেছি। আমদানি এবং উৎপাদন পর্যাপ্ত পরিমাণে আছে, এটা আমরা নিশ্চিত হয়েছি।

তিনি বলেন, বাজারে রমজান উপলক্ষ্যে এ মুহূর্তে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের কোনো ঘাটতি নেই। গত দেড় মাসে চালের বাজারে একটা অস্থিরতা ছিল। সেটা আল্লাহর অশেষ রহমতে স্থিতিশীল পর্যায়ে আছে। চালের দাম নিয়ে কোনো অভিযোগ নেই। তেলের দাম আমরা নির্ধারণ করে দিয়েছি।‌

টিসিবি ও প্রোডিন্টোর্গের মধ্যে সমঝোতা স্বারক স্বাক্ষর প্রসঙ্গে বাণিজ্য বলেন, রাশিয়া বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী বন্ধুপ্রতীম রাষ্ট্র। রাশিয়ার সঙ্গে সমঝোতা স্মারক খাদ্য নিরাপত্তায় সহযোগিতা হবে। শুধু রাশিয়াই নয়, ভারত, মিয়ানমারের সঙ্গে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য নিয়ে চুক্তি প্রক্রিয়াধীন আছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয় দেশের রপ্তানিযোগ্য পণ্যের বাজার সম্প্রসারণে কাজ করছে। 

 

সা/ই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত