36 C
Dhaka
Wednesday, January 27, 2021
No menu items!

বগুড়ার মার্কেটগুলোতে শিশুরা অরক্ষিত

কালাম আজাদ, বগুড়া থেকে: লক ডাউন ঘোষনার পরেও লুকিয়ে লুকিয়ে কিংবা বিভিন্ন কায়দা কৌশলের মাধমে বগুড়ার সব মার্কেটেই কমবেশী খোলা থেকেছে। বিশেষ করে বগুড়ার নিউ মার্কেটটি খোলা থেকেছে সেহেরীর পর থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত। দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্তাব্যাক্তিরা এসব দেখেও না দেখার ভান করেছে। বরাবরই এমন অভিযোগ করেছেন নাম প্রকাশ না করার স্বার্থে ওই মার্কেটগুলোর নীতিনির্ধারকরা। এখন মার্কেট পুরোটাই খোলা হয়েছে। খুল্লাম খুল্লাভাবেই চলছে মার্কেটেীয় কর্মকান্ড। এখন শিশুদের নিয়েও কেনাকাটা চলছে দেদারছে। অভিভাবকরা শিশুদের নিয়ে মার্কেটের এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে ছুটলেও শিশুদের কারো মুখেই মাস্ক দেখা যাচ্ছে না।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ১০ মে থেকে সীমিত আকারে মার্কেট খোলার ঘোষণার পরদিন থেকে বগুড়ায় প্রতিটি মার্কেটে কেনাকাটার প্রতিযোগিতা লেগে যায়। মার্কেট মালিক, দোকানদার এবং ক্রেতা কেউ স্বাস্থ্যবিধি মানছিল না। প্রতিটি মার্কেটে হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটে। স্বাস্থ্যবিধি না মানার অপরাধে বগুড়া নিউ মার্কেট, আশেপাশের মার্কেট ও হকার্স মার্কেটসহ অন্যান্য মার্কেটগুলো বন্ধ করে দেয় প্রশাসন। তারপর স্বাস্থ্যবিধি মেনে মার্কেট কর্তৃপক্ষ মার্কেট খোলার প্রতিশ্রুতি দিলে মার্কেট গুলো আবার খুলে দেয়া হয়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বগুড়ার হকার্স মার্কেট, রেল লাইনের উপর হটাৎ মার্কেট, নিউ মার্কেট, শপিংসেন্টার রানা প্লাজা, জলেশ^রীতলা কিংবা রাস্তার পাশে ফুটপাতের ভ্রাম্যমান দোকানগুলোতে শিশুদের নিয়ে অভিভাবকরা ঈদ মার্কেট করতে এসেছে। কিছু মার্কেটের বাহিরে স্যানিটাইজার দেয়া হলেও তা অনেকটায় পানিও নাই অথবা সাবান নাই। ওই সব মার্কেটে মাস্ক ছাড়াই শিশুদের নিয়ে অভিভাবকরা ভিড় ঠেলে কেনাকাটা করছেন। দোকানের সামনেও নির্দিষ্ট দূরত্ব পালন করা হচ্ছে না। করোনা ভাইরাসের ঝুঁকির মধ্যে শিশুদের নিয়ে মার্কেটে কেনাকাটায় উদ্বিগ্ন অন্যান্য অভিভাবকরা। দোকান মালিকরাও মাস্ক ছাড়া শিশুদের নিয়ে দোকানে ভিড় করার বিষয়ে কিছুই বলছেন না। ভিড়ে তাদের কেনাকাটায় যেন মূল উদ্যেশ্য এমনটি দেখা গেছে।

শিশু বাচ্চাকে নিয়ে কেনাকাটা করতে এসছেন একটি গ্রাম থেকে হকার্স মার্কেটে। মাস্ক নেই তবুও কেনাকাটায় করোনার বিষয়ে প্রতিক্রিয়া নেই। তিনি জানালেন, নিজের পছন্দ অনুযায়ী কেনাকাটা করবে তাই সাথে নিয়ে এসেছি। করোনায় আক্রান্ত হতে পারে এমন প্রশ্ন শুনে তারাহুরা করে সেখান থেকে পালিয়ে বাঁচলেন। বগুড়া নিউ মার্কেটে পুরো এক পরিবার নিয়ে ভিড় ঠেলে কেনাকাকাটা নিয়ে মহাব্যাস্ত এমন এক অভিভাবককে প্রশ্ন করতেই তিনি বিরক্ত হয়ে বললেন, কেনাকাটা করতে দেন তো। হকার্স মার্কেটে দেখা গেল অনেকে শিশুকে নিয়েই কেনাকাটা করছেন। সেখানেও একই চিত্র। জলেশ্বরীতলার ও শপিং সেন্টার রানা প্লাজার বেশ কয়েকজন শিশুদের নিয়ে কেনাকাটা করতে এসেছেন। করোনায় কেন শিশুদের নিয়ে এসেছেন এমন জিজ্ঞাসায় সবাই চোখ বড় বড় করে তাকিয়ে থাকে। মনে হয় করোনার নাম যেন বাপের জন্মে শুনেনি।

সর্বশেষ

মার্চের প্রথম সপ্তাহে খুলবে ঢাবির হল

নিউজ ডেস্ক: মার্চ মাসের প্রথম সপ্তাহে শুধুমাত্র অনার্স ও মাস্টার্স পরীক্ষার্থীর মধ্যে যারা আবাসিক (শিক্ষার্থী) তাদের জন্য হল খুলে দেওয়ার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত...

বগুড়ায় আলোচিত তুফান সরকারের ভাই সোহাগ সরকার গ্রেফতার

বগুড়া প্রতিবেদক: ৯৯৯এ কলপেয়ে বগুড়ায় ট্রাক মালিককে আটকে রেখে মারপিট ঘটনায় আলোচিত তুফান ও মতিন সরকারের ভাই সোহাগ সরকার(৪০)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।...

ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যে খুলতে পারে সরকারি প্রাথমিক: প্রতিমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: আগামী ফেব্রুয়ারির প্রথম বা দ্বিতীয় সপ্তাহে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার পর দেশের সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় খুলে...

ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবস প্যারেডে বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনী

নিউজ ডেস্ক: আগামী ২৬ জানুয়ারি ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবস। করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে এবার কোনও বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধান উপস্থিত থাকবে না। তবে নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠিত প্যারেডে...

দেশব্যাপী টিকাদান কর্মসূচি ৭ ফেব্রুয়ারি শুরু: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার (২৭ জানুয়ারি) বিকেলে দেশে করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগের প্রাথমিক কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন। উদ্বোধনের পরপরই নিবন্ধনের জন্য অনলাইন...