36 C
Dhaka
Tuesday, January 19, 2021
No menu items!

করোনা মোকাবেলায় তিন অগ্রাধিকার ক্ষেত্রে আরো সহযোগিতার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

নিউজ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোভিড-১৯ মোকাবিলায় তিনটি অগ্রাধিকার ক্ষেত্রে জরুরি মনোযোগ ও আরও বৈশ্বিক সহযোগিতার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছেন। এসব ক্ষেত্র হলো মানসম্পন্ন টিকার সর্বজনীন ও ন্যায়সংগত প্রবেশাধিকার নিশ্চিত, স্থানীয়ভাবে টিকা উৎপাদনে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে প্রযুক্তি হস্তান্তর, মহামারি–পরবর্তী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় তাদের আর্থিক সহায়তা প্রদান।

কোভিড-১৯ মহামারির প্রেক্ষাপটে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের (ইউএনজিএ) ৩১তম বিশেষ অধিবেশনে বাংলাদেশ সময় আজ শুক্রবার সকালে প্রাক্‌-রেকর্ডকৃত ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তবুও কিছু অগ্রাধিকার ক্ষেত্রে জরুরি মনোযোগ এবং আরও সহযোগিতা প্রয়োজন। প্রথমত, আমাদের যথাসময়ে ন্যায্যতার ভিত্তিতে ও সাশ্রয়ী মূল্যে সবার জন্য মানসম্মত ভ্যাকসিন প্রাপ্তি নিশ্চিত করা প্রয়োজন।’

জোট নিরপেক্ষ আন্দোলনের (ন্যাম) বর্তমান চেয়ার আজারবাইজান ও জাতিসংঘের মহাসচিব ৩ ডিসেম্বর থেকে দুই দিনের এই বিশেষ অধিবেশন ডেকেছেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ২০৩০ সালের উন্নয়ন অ্যাজেন্ডা সমতার নীতি দ্বারা পরিচালিত এসডিজি অর্জনে সর্বজনীন স্বাস্থ্য কভারেজের মৌলিক ভূমিকার স্বীকৃতি দেয়। একইভাবে যখন টিকা প্রাপ্তির কথা আসে, তখন কাউকে পেছনে রাখা সমীচীন হবে না। এটি মহামারি পরাস্ত করতে, জীবন বাঁচাতে ও অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার ত্বরান্বিত করতে সহায়তা করবে।

দ্বিতীয়ত, কোভিড-১৯ টিকাকে গোটা বিশ্বের জন্য একটি বৈশ্বিক জনপণ্য বিবেচনা করতে হবে বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ডব্লিউএইচওর অ্যাক্ট ও কোভ্যাক্স সুবিধার উদ্যোগ এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। উন্নত দেশগুলোর ট্রিপস চুক্তির আওতায় আইপি রাইটস ওয়েভার ব্যবহার করে উন্নয়নশীল দেশগুলোতে স্থানীয়ভাবে টিকা উৎপাদনের জন্য প্রযুক্তি হস্তান্তর করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হতে হবে। বাংলাদেশের সক্ষমতা রয়েছে এবং সুযোগ পেলে টিকা তৈরি করতে প্রস্তুত রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তৃতীয়ত, কোভিড-১৯-এর পরিপ্রেক্ষিতে আর্থিক সহায়তাসহ উন্নয়নশীল দেশগুলোর যেসব চ্যালেঞ্জ রয়েছে, সেগুলোকে বিশেষভাবে স্বীকৃতি দিতে হবে। জাতীয় সরকারগুলোর পাশাপাশি জাতিসংঘ, আইএফআই, সুশীল সমাজকে তাদের নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করতে হবে। এবং কোভিড-১৯ মোকাবিলায় একে অপরের সঙ্গে সক্রিয়ভাবে সহযোগিতা করতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, সারা বিশ্ব এখনো এই মারাত্মক ভাইরাস এবং এর প্রভাব মোকাবিলায় এক কঠিন সময় পার করছে। এ প্রেক্ষাপটে এ অধিবেশন সর্বোচ্চ গুরুত্ব বহন করে উল্লেখ করে তিনি বলেন, কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বজুড়ে স্বাস্থ্যব্যবস্থা ও অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সর্বত্র নিয়ন্ত্রণে না আনলে কোভিড-১৯-কে কখনোই কোনো একটি স্থানে নিয়ন্ত্রণে আনা যাবে না। আসুন, আমরা একটি টেকসই বিশ্বের জন্য ২০৩০ অ্যাজেন্ডা সম্পাদনে নতুনভাবে প্রতিশ্রুতি গ্রহণ করি, যেখানে আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম ভবিষ্যতের মহামারি মোকাবিলায় সমর্থ হবে।’

এই অধিবেশন কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবিলায় যৌথ পদক্ষেপ, বৈশ্বিক সংহতি ও বহুপক্ষীয় সহযোগিতা জোরদার করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি আশ্বাস দেন যে বাংলাদেশ এই বৈশ্বিক প্রচেষ্টায় সবার সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত রয়েছে।

করোনায় বিশ্বব্যাপী এ পর্যন্ত ১৪ লাখের বেশি লোক মারা গেছেন এবং প্রতিদিন শত শত মানুষ মারা যাচ্ছেন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ মহামারি অনেক মানুষকে আরও দরিদ্র করে তুলেছে। এবং আরও অনেকে ক্রমে দারিদ্র্যের দিকে ধাবিত হচ্ছে। সব দেশে অপুষ্টি, বৈষম্য ও ক্রমবর্ধমান অসমতা চেপে বসছে এবং শিক্ষাব্যবস্থা ব্যাহত হয়েছে। এর ফলে ব্যবসা, বাণিজ্য ও পর্যটনে ব্যাপক ধস নামায় মানুষের জীবন-জীবিকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এ মহামারি আমাদের মানুষের জীবন ও জীবিকা রক্ষায় ঐক্যবদ্ধ প্রয়াস গ্রহণের এবং তা আরও উন্নত করতে এ সংকট থেকে শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ করে দিয়েছে।’শেখ হাসিনা বলেন, ‘দুর্ভাগ্যক্রমে, কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে আমাদের লড়াই এখনো শেষ হয়নি। অনেক দেশই দ্বিতীয় বা তৃতীয় ধাক্কার মুখোমুখি হচ্ছে।’

বাংলাদেশ এ মহামারির কারণে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কোভিড-১৯ আমাদের অর্থনীতি, আমাদের জীবন ও জীবিকা, আমাদের অভিবাসী জনগোষ্ঠীকে ব্যাপক প্রভাবিত করেছে এবং আমাদের কষ্টার্জিত উন্নয়ন সাফল্যকে বিপর্যস্ত করে তুলেছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘তবে আমরা শুরু থেকেই এবং কার্যকরভাবে হস্তক্ষেপ করেছি এবং আমাদের অর্থনীতি ও জনগণকে মহামারি থেকে রক্ষায় সাহসী পদক্ষেপ নিয়েছি। আমার সরকার আমাদের ব্যবসায়, কর্মসংস্থান ও উৎপাদনশীলতার ওপর প্রভাব হ্রাস করতে ১৪ দশমিক ১৪ বিলিয়ন ডলার মূল্যের প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে, যা আমাদের জিডিপির ৪ দশমিক ৩ শতাংশের সমান।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁরা মার্চ মাসের প্রথম দিকে ভাইরাস শনাক্তকরণের পর থেকে ২৫ মিলিয়নের বেশি লোককে সহায়তা প্রদানে সামাজিক সুরক্ষাবেষ্টনীর আওতায় সম্প্রসারিত করেছেন। তিনি জানান, মহামারির দ্বিতীয় ধকল সামাল দিতে ব্যাপক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

সর্বশেষ

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়ায় সকল নৌযান বন্ধ, যাত্রীদের দুর্ভোগ

নিউজ ডেস্ক: ঘন কুয়াশার কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে সোমবার দিবাগত রাত ৩টা থেকে ফেরি ও লঞ্চসহ সব রকমের নৌযান চলাচল বন্ধ রয়েছে।নদী পারের...

সিনেট থেকে পদত্যাগ করলেন কমলা হ্যারিস

নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম নারী ও কৃষ্ণাঙ্গ ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস সিনেট থেকে স্থানীয় সময় সোমবার (১৮ জানুয়ারি) পদত্যাগ করেছেন। ২০...

মার্কিন ইতিহাসে সব থেকে বয়স্ক প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিচ্ছেন বাইডেন

নিউজ ডেস্ক: মার্কিন ইতিহাসে সবথেকে প্রবীণ প্রেসিডেন্ট হিসেবে আগামীকাল বুধবার শপথ গ্রহণ করছেন জো বাইডেন। গত বছরের নভেম্বরেই বাইডেনের বয়স হয়েছিল ৭৮...

বীর মুক্তিযোদ্ধা ও অভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলু আর নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক: বীর মুক্তিযোদ্ধা ও জনপ্রিয় অভিনেতা মুজিবুর রহমান দিলু আর নেই। মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে ঢাকার একটি বেসরকারি...

মেহেরপুর সদর উপজেলার উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

মেহের আমজাদ, মেহেরপুরঃ মেহেরপুর সদর উপজেলা পরিষদের আয়োজনে সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে মেহেরপুর সদর উপজেলার উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।...