36 C
Dhaka
Saturday, December 5, 2020
No menu items!
More

    ভারতের অবস্থা যেন এখানকার মতো না-হয়!

    এক বৃটিশ প্রবাসী বাঙালী চিকিৎসকের কথা

    নিউজ ডেস্ক: আমি শিলচরের মেয়ে। শিলচর মেডিক্যাল কলেজ থেকে ডাক্তারি পাশ করেছিলাম। ২০১৩ সাল থেকে ব্রিটেনে রয়েছি। যুক্ত আছি বাকিংহামশায়ারের অ্যামেরশাম হাসপাতালের সঙ্গে।

    নাম প্রকাশ করতে পারছি না, কারণ আমি নিজেই করোনা-আক্রান্ত। আসলে ব্রিটেনে কে যে করোনা-আক্রান্ত নয়, সেটাই এখন বলা মুশকিল। রোগীর ঢল নামছে হাসপাতালগুলোয়। ডাক্তার কম, নার্স কম। কারণ সবাই আক্রান্ত হচ্ছেন৷ নেই প্রয়োজনীয় সংখ্যক আইসিইউ বেড। এমনকি, ডাক্তারদের পিপিই কিট-ও দুর্লভ। শুধু আইসিইউয়ে যাঁদের ডিউটি, তাঁরাই পিপিই পাচ্ছেন। ফলে আমাকে প্লাস্টিক গাউন, সার্জিক্যাল মাস্ক ও গ্লাভস পরেই রোগী দেখতে হয়েছে।

    মার্চের শেষ সপ্তাহে ৫ জন রোগী ছিলেন আমাদের দুই চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে। তাঁদের ২ জন পজ়িটিভ। অন্য ৩ জনও করোনা পজ়িটিভ বলে সন্দেহ করা হচ্ছিল। ৩ এপ্রিল আমরা দুই চিকিৎসকই আক্রান্ত হই করোনায়। প্রথমে শুকনো কাশি। সঙ্গে জ্বর। পরের দিন থেকে প্রচণ্ড মাথাব্যথা, শ্বাসকষ্ট, বুকে ব্যথা।

    আশঙ্কা ছিলই। তাই আগে থেকে মাল্টিভিটামিন নিচ্ছিলাম। সঙ্গে চলছিল ব্যায়াম। কিছু অ্যান্টিবায়োটিকও নিয়েছি। কারণ করোনায় অনেকের নিউমোনিয়া হয়ে যাচ্ছে। বিছানায় শুয়ে আমি ভাবছি দেশের কথা। ভারতেও প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। আতঙ্কে রয়েছি, কখন না অবস্থাটা এখানকার মতো হয়ে যায়। ব্রিটেনে সব করোনা রোগীকে হাসপাতালে রাখা হয় না। ধরা পড়লেই বলা হচ্ছে, ‘দ্রুত বাড়ি চলে যাও। বাড়িতে থাকো।’ যখন অক্সিজেনের প্রয়োজন হয়, তখনই হাসপাতালে ভর্তি করা হচ্ছে৷

    আমি তো তবু ডাক্তার বলে অ্যান্টিবায়োটিক নিয়েছি। সাধারণ রোগীদের ‘বাড়ি থাকো’র বাইরে কোনও প্রেসক্রিপশনও নেই। ফলে আমরা টিভিতে বা অন্য মাধ্যমে এখানকার রোগীর যে সংখ্যাটা দেখছি, বাস্তবে আক্রান্ত তার থেকে ঢের বেশি।

    এখন তো আর এক সমস্যা। ডাক্তারেরাই একের পর এক অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। হাসপাতাল চালানোই মুশকিল। তাই করোনায় আক্রান্ত ডাক্তারদেরও ডাকাডাকি হচ্ছে। আমাকেও ডাকছে। এখনও আমি সুস্থ হয়ে উঠিনি। আমার থেকেও অন্যরা পজ়িটিভ হতে পারে। তাই অন্তত আরও এক সপ্তাহের আগে রোগী দেখব না।

    ভয়ের কথা কি এখানেই শেষ! আমি করোনা-মুক্ত কি না, তা জানতে আমার কিন্তু আর টেস্ট হবে না। আবার পরীক্ষা করানো একেবারে অসম্ভব। কারণ যথেষ্ট টেস্ট কিট নেই৷ কত মানুষের প্রথম বারই পরীক্ষা হচ্ছে না। ডাক্তার বলে আমার তো তবু এক বার হয়েছে!

    সর্বশেষ

    গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলো ভেঙে ফেলার আয়োজন চলছে : মির্জা ফখরুল

    নিউজ ডেস্ক: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘একতরফা নির্বাচন করে আবারও জাতিকে একদলীয় নিষ্ঠুর শাসনের শৃঙ্খলে বন্দি করে মানুষের নাগরিক...

    সকল ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করে গণতন্ত্রের ভিত্তিকে আরো শক্তিশালী করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

    নিউজ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণতন্ত্রবিরোধী সকল ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করে গণতন্ত্রের ভিত্তিকে আরো শক্তিশালী করাসহ দেশের উন্নয়ন ও জণগণের কল্যাণে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ...

    বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতা রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল: মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী

    নিউজ ডেস্ক: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যের বিরোধিতা রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

    পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু ৮ ডিসেম্বর

    নিউজ ডেস্ক: আসন্ন ৬১টি পৌরসভা নির্বাচনের জন্য আগামী ৮ ডিসেম্বর থেকে ১৩ ডিসেম্বর বিকাল ৫টা পর্যন্ত মনোনয়ন ফরম বিতরণ করবে আওয়ামী লীগ।

    বাগেরহাটে ফুটপাতের শীতের পোশাক ব্যবসায়ীদের দুর্দিন

    বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাটে ফুটপাতের শীতের পোশাক বিক্রেতাদের দুর্দিন যাচ্ছে। ক্রেতা শূণ্যতায় হাত-পা গুটিয়ে বসে থাকছে হচ্ছে তাদের। একেকজন ব্যবসায়ী দেড় থেকে দুই...