36 C
Dhaka
Friday, October 2, 2020
No menu items!
More

    বিদেশে থেকে ফেরত আসা বাংলাদেশি কর্মীর সংখ্যা আশঙ্কাজনক নয়: মন্ত্রী

    নিউজ ডেস্ক: করোনার কারণে বিদেশে থেকে ফেরত আসা বাংলাদেশি কর্মীর সংখ্যা আশঙ্কাজনক নয় বলে দাবি করেছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। তিনি বলেন, ‘অর্থনৈতিক মন্দা ও করোনার কারণে শ্রমবাজার বিপর্যস্ত হওয়ায় অনেক কর্মী বেকার হয়ে পড়ার আশঙ্কা করা হয়েছিল। তবে আশার কথা এই যে এখন পর্যন্ত ফেরত আসা কর্মীর সংখ্যা আশঙ্কাজনক হয়ে ওঠেনি।’

    করোনা পরিস্থিতিতে বৈশ্বিক শ্রমবাজারে বাংলাদেশের অবস্থান এবং উদ্যোগ নিয়ে সংসদের কার্যপ্রণালি বিধির ৩০০ বিধিতে এই বিবৃতি দেন মন্ত্রী ইমরান।

    মন্ত্রী বলেন, ‘কারোনার কারণে বিভিন্ন দেশে ডিপোর্টেশন সেন্টারে থাকা অনিয়মিতদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর কারণে আমাদের কর্মীদের একটি ক্ষুদ্র অংশ দেশে ফেরত এসেছে। গত ১ এপ্রিল থেকে ৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এক লাখ ১১ হাজার ১১১ কর্মী দেশে ফেরত এসেছেন। তাদের অনেকেই কাজের মেয়াদ শেষে বা কাজ না থাকায় দেশে ফেরত এসেছেন। যদিও আশঙ্কা করা হয়েছিল অর্থনৈতিক মন্দা এবং করোনার কারণে প্রধান কর্মী নিয়োগকারী দেশসমূহের শ্রমবাজার বিপর্যস্ত হওয়ার কারণে অনেক কর্মী বেকার হয়ে পড়বেন। কিন্তু আশার কথা এই যে এখন পর্যন্ত ফেরত আসা কর্মীর সংখ্যা আশঙ্কাজনক হয়ে ওঠেনি।’

    তিনি বলেন, করোনা ও বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার কারণে বিশ্বব্যাপী শ্রম বাজার হুমকির সম্মুখীন হয়েছে। অন্যতম কর্মী প্রেরণকারী দেশ হিসেবে বাংলাদেশের জন্য একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা দিয়েছে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে শ্রমবাজার নিয়ে সংবাদ পরিবেশিত হওয়ায় এই সম্পর্কে বিভ্রান্তি দূর করতে এবং শ্রম বাজারের সর্বশেষ তথ্য প্রদানের জন্য মন্ত্রী হিসেবে এই বিবৃতির প্রদান যৌক্তিক বলে মনে করছি। বিগত বছরগুলোর হিসাব অনুযায়ী বাংলাদেশ থেকে প্রায় প্রতি মাসে ৬০ হাজার কর্মী বিদেশে গেছেন। ২০১৯ সালের জানুয়ারি-অগাস্ট মাসে চার লাখ ৬০ হাজার কর্মী বিদেশে গিয়েছে। কিন্তু চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত মাত্র এক লাখ ৭৬ হাজার কর্মী বিদেশে গেছেন। এর কারণ হলো এ বছরের এপ্রিল থেকে আগস্ট পর্যন্ত কোনও কর্মী বিদেশে যেতে পারেননি।

    তিনি আরও বলেন, বিদেশে থাকা বাংলাদেশি কর্মীর সংখ্যা ১ কোটির বেশি। করোনার কারণে অনেককেই দেশে ফেরত আসতে হয়েছে। এপ্রিলের আগে যারা ছুটিতে দেশে এসে আটকা পড়েছেন, তাদের সংখ্যা ধরলে এই সংখ্যা পৌনে ৩ লাখ ছাড়িয়ে যাবে। দেশে রেমিট্যান্স প্রবাহ বেশি হওয়ায় প্রবাসী কর্মীদের ধন্যবাদ জানান মন্ত্রী।

    প্রবাসী কর্মীদের করোনা টেস্ট ফি ১০০ টাকা করতে প্রধানমন্ত্রী এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছে দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তারা আমাদের দেশের নাগরিক। বিদেশে গিয়ে আমাদের দেশের জন্য বৈদেশিক মুদ্রা পাঠাচ্ছেন। সাধারণ মানুষের কাছ থেকে যেই ফি নেওয়া হচ্ছে বিদেশগামীদের কাছ থেকেও যেন একই ফি নেওয়া হয়। সেই হিসাবে এখন যেহেতু সাধারণ নাগরিকরা ১০০ টাকা ফি দিয়ে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করাতে পারছেন, বিদেশগামীদের জন্যেও ১০০ টাকা করা উচিত।’

    সর্বশেষ

    শেখ হাসিনার জন্মদিন পালন করলো ইতালি আওয়ামী লীগ

    জাকির হোসেন সুমন, ব্যুরো চিফ ইউরোপ: আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মবার্ষিকী পালন করেছে ইতালি আওয়ামী লীগ । ইতালি আওয়ামী...

    করোনায় প্রাণ গেল বিএসএমএমইউ অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ হোসেনের

    নিউজ ডেস্ক: করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থী (ব্যাচ-২৫) ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ইউরোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক...

    আরও ৩ বছরের জন্য নিয়োগ পেলেন ঢাকা ও চট্টগ্রাম ওয়াসার এমডি

    নিউজ ডেস্ক: ষষ্ঠবারের মতো ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন বর্তমান এমডি প্রকৌশলী তাকসিম এ খান। বৃহস্পতিবার ওয়াসা চেয়ারম্যানকে পাঠানো...

    মাহবুবে আলমের মৃত্যু বিচারাঙ্গনের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি: প্রধান বিচারপতি

    নিউজ ডেস্ক: সদ্যপ্রয়াত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যুকে দেশের বিচারাঙ্গনের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি বলে অভিহিত করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

    অবৈধ ক্ষমতা দখলকারীরা জাতির পিতার ফসল ভোগ করেছে: প্রধানমন্ত্রী

    নিউজ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘অবৈধ ক্ষমতা দখলকারীরা ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করবার দিকে যতটা দৃষ্টি দেয়, দেশের মানুষের উন্নয়নের দিকে ততটা দৃষ্টি...