36 C
Dhaka
Wednesday, December 2, 2020
No menu items!
More

    মহান মে দিবস

    আজ মহান মে দিবস। ১৮৮৬ সালের এ দিনে দৈনিক আট ঘণ্টা শ্রম ও শ্রমজীবী মানুষের স্বার্থ রক্ষার দাবিতে আমেরিকার শিকাগো শহরে ধর্মঘটরত শ্রমিকদের ওপর মালিকপক্ষের প্ররোচনায় পলিশ চালিয়েছিল নির্বিচার গণহত্যা। শত শত শ্রমিকের রক্তে সেদিন রঞ্জিত হয়েছিল শিকাগোর রাজপথ। সে থেকে প্রতি বছর ১ মে সারা বিশ্বে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। বাংলাদেশেও দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়ে থাকে। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ শীর্ষ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ পৃথক বাণী দিয়েছেন।

    এবার মে দিবস এসেছে এক ভিন্ন বিশ্ব প্রেক্ষাপটে। সারা বিশ্ব আজ করোনা নামের এক মরণব্যধির করাল গ্রাসে নিপতিত। দেশে দেশে এ মহামারী ঠেকাতে ঘোষণা করা হয়েছে লকডাউন। আর এ প্রেক্ষিতে বন্ধ হয়ে গেছে সব কল-কারখানা। বাংলাদেশও তার ব্যতিক্রম নয়। মাসাধিককাল ধরে চলা লকডাউনে শ্রমজীবী মানুষের জীবন আজ ওষ্ঠাগত। কাজকর্মহীন অবস্থায় তারা অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকেই এগিয়ে যাচ্ছে। অবশ্য পোশাকশিল্প মালিকদের দাবিতে সরকার এ খাতে লকডাউন নমনীয় করেছে। সরকার শর্ত সাপেক্ষে কিছু কারখানা খোলার অনুমতি দিলেও দেশের প্রায় সব কারখানা খুলে দেওয়া হয়েছে এমন খবর আমরা গণমাধ্যমেই দেখেছি। সরকার রাজধানী বা শিল্প এলাকার বাইরে থেকে শ্রমিকদের না আনার কথা বললেও শিল্পমালিকরা তাতে কর্ণপাত করেছেন বলে মনে হয় না। কেননা, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে দলে দলে পোশাক শ্রমিকদের ঢাকা, নারয়নগঞ্জ ও গাজীপুরে আগমনের সচিত্র সংবাদ গণমাধ্যমে প্রচার-প্রকাশ হয়েছে। যদিও সরকার স্বাস্থ্যবিধি মেনে কারখানা খোলার নির্দেশ দিয়েছিল, তবে তা কতটুকু মানা হয়েছে তা প্রশ্ন সাপেক্ষ বটে। এভাবে শ্রমজীবী মানুষদের জীবনের ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দেয়া কতটুকু সমীচীন হয়েছে সে প্রশ্ন এড়িয়ে যাওয়া যাবে না।

    প্রতি বছর মে দিবসে শ্রমিকস্বার্থ রক্ষা ও শ্রমজীবী মানুষের কল্যাণের বিষয়ে অনেক কথাই বলা হয়। কিন্তু বাস্তবে তার কতটুকু প্রতিফলন ঘটে এ নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে। আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা- আইএলও’র কনভেনশনে স্বাক্ষরকারী দেশ হিসেবে শ্রমিক স্বার্থ রক্ষায় বাংলাদেশ অঙ্গীকারবদ্ধ। কিন্তু প্রতিনিয়ত আমরা শ্রমিকস্বার্থ ব্যাহত হতে দেখছি। কোনো কোনো ক্ষেত্রে শ্রমিক কল্যাণ তো দূরের কথা, তাদের ন্যায্য পাওনাটুকু পর্যন্ত শিল্পমালিকরা দেন না। করোনার এই সংকটকালে এখনও বকেয়া বেতনের দাবিতে পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ করতে দেখা যায়। সরকারের নির্দেশ সত্তে¡ও কতিপয় কারখানা মালিক শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা দিতে গড়িমসি করে।

    জাতীয় অর্থনীতির যে চাকা প্রতিনিয়ত ঘুরে আমাদের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে সামনের দিকে নিয়ে যাচ্ছে, তার পেছনের রয়েছে শ্রমিকদের অসামান্য অবদান। তারাই শিল্পের চাকা ঘুরিয়ে অর্থনীতির চাকাকে বেগবান করতে অবিরাম শ্রম দিয়ে যাচ্ছে। অথচ কিছু অবিবেচক ও বিবেকহীন মানুষ তাদের সে অবদানকে স্বীকার তো করেই না, উল্টো ন্যায্য পাওনাটুকু দিতে চায় না। এ অব্যবস্থার অবসান হওয়া দরকার। এ ব্যাপারে সরকারের কঠোর পদক্ষেপের কোনো বিকল্প আছে বলে আমরা মনে করি না। আমরা বলতে চাই, শুধু মে দিবসের বক্তৃতায় নয়, শ্রমিক শ্রেণির অধিকার প্রতিষ্ঠায় কার্যকর পদক্ষেপ এক্ষুনি নিতে হবে। যাদের রক্ত-ঘামে গড়ে উঠছে উন্নয়নের প্রাসাদ, তারা যেন আর অবহেলার শিকার না হয়, মহান মে দিবসে সেটাই আমাদের প্রত্যাশা।

    সর্বশেষ

    আদমদীঘির ছাতিয়ানগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ালীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

    আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার ছাতিয়ানগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বিকেলে ছাতিয়ানগ্রাম দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ইউনিয়ন আ’লীগের...

    সাংসদ এমিলির সুস্থতার কামনায় লৌহজং উপজেলা আওয়ামী লীগের দোয়া মাহফিল শুক্রবার

    প্রেস রিলিজ"মুন্সিগঞ্জ দুই আসনের মাননীয় সাংসদ অধ্যাপিকা সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি এমপির করোনা পজিটিভ হইতে দ্রুত আরোগ্য কামনায় আগামী শুক্রবার ৪ ডিসেম্বর বাদ...

    সংসার ভাঙ্গা সহজ,গড়া কঠিন

    এম আর ফারজানা ইদানীং দেখছি সংসার ভাঙ্গার মাত্রা অনেকে বেড়ে গেছে। সামান্যএকটু কিছু হলেই দুজন দুদিকে চলে যাচ্ছে। আসলে...

    অনুমতি ছাড়া রাজধানীতে মিছিল-মিটিং নিষিদ্ধ

    নিউজ ডেস্ক: অনুমতি ছাড়া রাজধানীতে মিছিল ও সভা-সমাবেশসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন থেকে বিরত থাকার জন্য সবার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ...

    ১৬ জানুয়ারি দ্বিতীয় ধাপের ৬১ পৌরসভার ভোট (তালিকা)

    নিউজ ডেস্ক: দ্বিতীয় ধাপে দেশের ৬১টি পৌরসভায় আগামী ১৬ জানুয়ারি ভোট গ্রহণ করা হবে। আজ বুধবার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে দ্বিতীয়...