36 C
Dhaka
Tuesday, August 4, 2020
No menu items!
More

    আমাদের স্বাধীনতা, আমাদের দায়িত্ব

    আজ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। ১৯৭১ সালের এ দিনে পাক হানাদর বাহিনীর বিরুদ্ধে এদেশের মানুষ সূচনা করেছিল মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের। ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণে স্বাধীনতার যে আহ্বান ছিল, তার চুড়ান্ত পরিণতি ঘটে আজকের এ দিনে। চট্টগ্রামের কালুরঘাট বেতারকেন্দ্র থেকে তৎকালীন মেজর জিয়ার কণ্ঠে ঘোষিত হয়েছিল বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণার বাণী। তারপরের ইতিহাস আমাদের সবারই জানা। ক্ষুধার্ত নেকড়ের ন্যায় ঝাঁপিয়ে পড়া পাকিস্তানী বর্বর বাহিনীর হাতে শহীদ হন ত্রিশ লাখ মুক্তপাগল বাঙালি। জীবনের সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ সম্পদ হারান দুই লাখ নারী। নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর স্বাধীনতা আমাদের হয়।

    স্বাধীনতা প্রাপ্তির পর আমরা অতিক্রম করেছি উনপঞ্চাশটি বছর। আগামী বছর আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করব। এ দীর্ঘ পাঁচ দশকে আমরা কতটা অগ্রসর হয়েছি তার নিকাশ করার সময় অবশ্যই এসেছে। একটি শোষণ ও ভেদাভেদহীন সমাজ প্রতিষ্ঠার প্রত্যয় নিয়ে একাত্তরে আমরা পাকিস্তানী সামরিকজান্তার বিরুদ্ধে জানবাজ লড়াইয়ে অবতীর্ণ হয়েছিলাম। কিন্তু সে আকাক্সক্ষা যে সর্বোতভাবে পূরণ হয়নি তা অস্বীকার করা যাবে না। আজ স্বাধীনতা বার্ষিকীর এই শুভলগ্নে তাই আমাদের আত্মজিজ্ঞাসা ও আত্মবিশ্লেষণ অতীব গুরুত্বপূর্ণ। এ কথা অনস্বীকার্য যে, আমাদের যা কিছু অগ্রগতি, তার সবই স্বাধীনতার দান। একটি সাধীন-সার্বভৌম জাতি হিসেবে আজ আমরা বিশ্বদরবারে শির উঁচিয়ে চলতে পারছি। তারপরও কিছু না পাবার আক্ষেপ আমাদের থেকেই গেছে। আজও যখন শোনা যায় দুর্বত্ত কর্তৃক ধর্ষিত নারীর আর্তনাদের কথা, শোনা যায় রাষ্ট্রের অর্থ লোপাটের কথা, তখন প্রশ্ন জাগে- এজন্যই কি আমরা স্বাধীনতা ছিনিয়ে এনেছিলাম? রাজনৈতিক মতপার্থক্য আমাদের মধ্যে এমন অনতিক্রম্য বিভাজন তৈরি করেছে যে, চরম আনন্দ বা বিপদের দিনেও একাত্ম হতে পারেন না আমদের রাজনীতিকরা। আমাদের জাতীয় জীবনে এর চেয়ে ট্র্যাজেডি আর কী হতে পারে!

    এবারের স্বাধীনতা দিবস এমন এক সময়ে এসেছে, যখন বাংলাদেশসহ গোটা পৃথিবী এক ভয়ঙ্কর সময় পার করছে। করোনাভাইরাস নামে প্রায় অদৃশ্য এক ক্ষুদ্র জীবানু গোটা পৃথিবীকে ওলট-পালট করে দিতে উদ্যত হয়েছে। আমরাও এর বাইরে নই। করোনার কারণে আমাদের মহান স্বাধীনতা দিবসের সমস্ত কর্মসূচি বাতিল করা হয়েছে। সরকার যথাসাধ্য চেষ্টা করছে পরিস্থিতি সামাল দিতে। এমুহূর্তে দরকার জাতীয় ঐক্য। পরিস্থিতি বিবেচনা করে সরকার বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে তার পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে শর্তসাপেক্ষে মুক্তি দিয়েছে। এ ঘটনায় দেশবাসী স্বস্তিবোধ করছে। এখন বিএনপির উচিত, সরকারের সমালোচনায় সময় ব্যয় না করে করোনা প্রতিরোধে সরকারকে সহায়তা করা।

    আমরা মনেকরি, এ মুহূর্তে আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য হলো যার যার অবস্থান থেকেত এ ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি মোকাবেলায় অবদান রাখা। ১৯৭১ সালে আমরা যেমন স্বাধীনতার জন্য কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে শত্রুসেনাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছিলাম, এবার করোনার বিরুদ্ধে আমাদেরকে সেরকম জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে। রক্ষা করতে হবে জাতিকে। এবারের মহান স্বাধীনতা দিবসে এটাই হোক আমাদের দৃপ্ত শপথ।

    সর্বশেষ

    লৌহজংয়ের কনকসারে ত্রান বিতরণ করলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব তোফাজ্জল হোসেন মিয়া

    নিউজ ডেস্ক: সোমবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার কনকসার ইউনিয়নস্থ আশ্রয়কেন্দ্র "কনকসার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়'' পরিদর্শন ও ত্রান বিতরন করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব...

    শ্রীনগরে নৌভ্রমনে গিয়ে মদপানে ১৪ বছরের কিশোরের মৃত্যু

    মো:নজরুল ইসলাম ,শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি: শ্রীনগরে নৌভ্রমনে গিয়ে মদ পান করে ১৪ বছরের এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। গত ২ আগস্ট রোববার সন্ধ্যা...

    করোনাভাইরাসকে উপেক্ষা করে প্রখ্যাত আলেম মুর্শিদুলের জানাজায় মানুষের ঢল

    নিউজ ডেস্ক: করোনাভাইরাসকে উপেক্ষা করে প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন ও কক্সবাজারের রামুর অফিসেরচর ইসলামিয়া কওমিয়া কাছেমুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মুফতি মুর্শিদুল আলম...

    শেখ হাসিনা প্রমাণ করেছেন সঠিক নেতৃত্ব দিতে পারলে দুর্যোগ মোকাবেলা সম্ভব : তথ্যমন্ত্রী

    নিউজ ডেস্ক: তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আমাদের দেশের বিরোধী দল ঘরের মধ্যে বসে অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে টেলিভিশনে উঁকি দিয়ে কথা বলে,...

    শাজাহানপুরে সিদ্দিক হত্যা মামলার আসামিদের ৪ মাসেও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ

    সজিবুল আলম সজিব শাজাহানপুর(বগুড়া)প্রতিনিধি: বগুড়ার শাজাহানপুরে দীর্ঘ ৪ মাসেও গ্রেফতার হয়নি বিদেশ ফেরত যুবক আবু বক্কর সিদ্দিক হত্যা মামলার প্রধান আসামি সন্ত্রাসী...